kalerkantho

শুক্রবার । ৮ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৬ জমাদিউস সানি ১৪৪১

স্মরণকালের কঠোর নিরাপত্তা শোলাকিয়ায়

সকাল ১০টায় জামাত

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি   

৪ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্মরণকালের সবচেয়ে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে এবার কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া মাঠে দেশের সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। ২০১৬ সালে শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলা ও সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে জঙ্গি হামলার বিষয়গুলো মাথায় রেখে নিরাপত্তাব্যবস্থাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে সাজানো হচ্ছে পুরো আয়োজন।

ঈদের জামাতকে উৎসবমুখর, নির্বিঘ্ন ও নিরাপদ রাখতে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। এটি হবে শোলাকিয়ায় ১৯২তম ঈদুল ফিতরের জামাত। সকাল ১০টায় শুরু হবে ঈদের জামাত। এ জামাতে ইমামতি করবেন ইসলাহুল মুসলিমিন পরিষদের চেয়ারম্যান মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ।

জেলা ও পুলিশ প্রশাসন, পৌরসভা এবং ঈদগাহ কমিটি শোলাকিয়ার জামাতকে সফল করতে সচেষ্ট রয়েছে। এরই মধ্যে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, র‌্যাব ও বিজিবির কর্মকর্তারা শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠ পরিদর্শন করেছেন।

ঈদের দিন শোলাকিয়ায় পাঁচ প্লাটুন বিজিবি, এক হাজার ২০০ পুলিশ, ১০০ র‌্যাব সদস্য ও বিপুলসংখ্যক আনসার সদস্যের সমন্বয়ে নিশ্ছিদ্র ও কঠোর নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হবে। একই সঙ্গে মাঠে সাদা পোশাকে নজরদারি করবেন বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা। এ ছাড়া মাঠসহ প্রবেশপথগুলোতে থাকছে সিসি ক্যামেরা ও ১২টি ওয়াচ টাওয়ার। সুনির্দিষ্ট ৩২টি গেট দিয়ে মাঠে প্রবেশ করবে মুসল্লিরা। নজরদারিতে আকাশে উড়বে ড্রোন ক্যামেরা। মাঠের নিরাপত্তায় প্রস্তুত থাকবে মাইন সুপিং ও বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল। নামাজ শুরুর আগে মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে পুরো মাঠ তল্লাশি করা হবে। থাকবে আর্চওয়ে। সব মিলিয়ে শোলাকিয়া মাঠে চার স্তরের নিরাপত্তাবলয় থাকছে বলে জানিয়েছে পুলিশ প্রশাসন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা