kalerkantho

সোমবার । ২৪ জুন ২০১৯। ১০ আষাঢ় ১৪২৬। ২০ শাওয়াল ১৪৪০

কৃষিপ্রধান বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা এ বছর থেকেই

অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রেও চালুর চিন্তা

নিজস্ব প্রতিবেদক ও শেকৃবি প্রতিনিধি   

১৩ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রতিবছর বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে গিয়ে দুর্ভোগে পড়তে হয় দেশের লাখ লাখ শিক্ষার্থীকে। একের পর এক বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা দিয়ে তারা অপেক্ষায় থাকে কোনটিতে ভর্তির সুযোগ পেল। এই দুর্ভোগ কমিয়ে আনতে দেশের কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও কৃষিপ্রধান আটটি বিশ্ববিদ্যালয় সমন্বিতভাবে গুচ্ছপদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় এই ব্যবস্থা কার্যকর করা হবে।

এদিকে দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে এই ব্যবস্থা চালু করা যায় কি না, সেটি ভাবছে সরকার। গতকাল রবিবার শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, ‘একাদশ শ্রেণিতে পাঁচ বছর ধরে অনলাইনের মাধ্যমে যে সমন্বিত ভর্তি কার্যক্রম চলছে, এই প্রক্রিয়া ধরে আমরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেও সমন্বিত ভর্তি চালু করতে চাই। এ ব্যাপারে এরই মধ্যে অনেক অগ্রগতি হয়েছে। সমন্বিত না হলেও আগামী দিনে গুচ্ছপদ্ধতিতে ভর্তিপ্রক্রিয়া শুরু করতে চাই। এতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের কষ্ট ও ভোগান্তি লাঘব হবে।’ গতকাল একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রম উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন।

এদিকে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) উপাচার্য ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ বলেন, এসব বিশ্ববিদ্যালয় হলো ঢাকায় অবস্থিত শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহে অবস্থিত বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সায়েন্স বিশ্ববিদ্যালয়, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

ইউজিসির সদস্য ড. আখতার হোসাইন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আটটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা এ বছর থেকেই কার্যকর করা হবে।’

 

মন্তব্য