kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

র‌্যাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপন

পুরস্কার পেলেন ৫৯ সদস্য

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৭ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) গতকাল স্বাধীনতা দিবসে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্‌যাপন করেছে।  ২০০৪ সালের ২৬ মার্চ প্যারেডের মাধ্যমে এ বাহিনীর জন্ম হয়। গতকাল র‌্যাব দেড় দশক পূর্ণ করেছে। র‌্যাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সাহসিকতা ও সেবায় সম্মাননা স্বীকৃতি পেয়েছেন বাহিনীর ৫৯ সদস্য।  গতকাল র‌্যাব সদর দপ্তরে বাহিনীর ১৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে তাদের এ স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

র‌্যাব জানায়, ২০০৪ সালের ২৬ মার্চ  ‘বাংলাদেশ আমার অহংকার’ এই স্লোগান ধারণ করে র‌্যাব দেশপ্রেম, একনিষ্ঠ আন্তরিকতা, পেশাদারিত্ব ও অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে দেশের জনগণের কাছে বিশেষ আস্থা তৈরি করে দেড় দশক পূর্ণ করেছে। গতকাল ভোর ৫টা ২৫ মিনিটে জাতীয় পতাকা ও র‌্যাব ফোর্সেসের পতাকা উত্তোলন এবং গার্ড অব অনারের মাধ্যমে র‌্যাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কার্যক্রম শুরু হয়। সকাল ৮টার দিকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ। এ সময় র‌্যাবের অন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন। পরে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত ও তরজমার মাধ্যমে র‌্যাবের মহাপরিচালকের বিশেষ দরবার শুরু হয়। র‌্যাবের বিভিন্ন অভিযানিক কার্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করে সাহসিকতা ভূমিকা পালন করায় র‌্যাবের মহাপরিচালক বাহিনীর ৩৪ সদস্যকে বিশেষ সম্মাননা পুরস্কার (সাহসিকতা) এবং ২৫ সদস্যকে বিশেষ সম্মাননা পুরস্কার (সেবা) দেন। এ ছাড়া র‌্যাবের অভিযানিক সাফল্যের ওপর (জঙ্গি, মাদক, অস্ত্র ও সার্বিকভাবে) ভিত্তি করে চারটি ক্যাটাগরিতে র‌্যাবের বিভিন্ন ব্যাটালিয়নকে পুরস্কৃত করা হয়। জঙ্গিসংক্রান্ত অভিযানিক সাফল্যের ওপর ভিত্তি করে প্রথম স্থান অধিকার করে র‌্যাব-১৩, দ্বিতীয় স্থান পায় র‌্যাব-৫ ও তৃতীয় স্থান অর্জন করে র‌্যাব-১১। মাদকবিরোধী অভিযানে প্রথম হয়েছে র‌্যাব-৭, দ্বিতীয় হয়েছে র‌্যাব-৫ এবং তৃতীয় স্থান পেয়েছে র‌্যাব-১। অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে প্রথম স্থান পেয়েছে র‌্যাব-৭, র‌্যাব-৮ ও র‌্যাব-৫ যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় হয়েছে। সার্বিকভাবে প্রথম হয়েছে র‌্যাব-৭। দ্বিতীয় ও তৃতীয় হয়েছে যথাক্রমে র‌্যাব-৫ ও র‌্যাব-১৩।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা