kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

আলোচনাসভায় বিএনপি

আ. লীগ ছদ্মবেশে বাকশাল প্রতিষ্ঠা করতে চলেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিএনপির নেতারা বলেছেন, আওয়ামী লীগ স্বাধীনতার চেতনাকে ধ্বংস করে দিয়েছে। তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও আদর্শ ভূলুণ্ঠিত করেছে। ৪৮ বছর পর এসে দলটি একইভাবে নির্যাতন-নিপীড়নের মধ্য দিয়ে ছদ্মবেশে বাকশাল প্রতিষ্ঠা করতে চলেছে।

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে গতকাল রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আয়োজিত আলোচনাসভায় বিএনপির নেতারা এসব কথা বলেন। বিএনপি আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘১৯৭১ সালের যে চেতনা ও আদর্শ সামনে নিয়ে এ দেশের মানুষ মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল এবং স্বাধীনতা অর্জন করেছিল, মুক্তিযুদ্ধের সেই চেতনা ও আদর্শ আজ ভূলুণ্ঠিত। স্বাধীনতার অর্থ হচ্ছে এই ভূখণ্ডে বসবাসকারীদের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও মুক্তির স্বাধীনতা। এই আওয়ামী লীগ তা পুরোপুরি ধ্বংস করে দিয়েছে। ৪৮ বছর পর ঠিক একইভাবে আওয়ামী লীগ নির্যাতন-নিপীড়নের মধ্য দিয়ে ছদ্মবেশে একটি বাকশাল প্রতিষ্ঠা করতে চলেছে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মতো ত্যাগ কোনো নেতা এ দেশে করেননি। কী দুর্ভাগ্য, সরকার তাঁর চিকিৎসা পর্যন্ত করছে না। আমাদের প্রধান দায়িত্ব হচ্ছে, জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আন্দোলনের মধ্য দিয়েই নেত্রীকে মুক্ত করে আনা।’

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘স্বাধীনতার ঘোষণা জিয়াউর রহমান দিয়েছেন এটা আমাদের বলার অপেক্ষা রাখে না। বলা হয় ৭ই মার্চ নাকি স্বাধীনতার ঘোষণা হয়েছে। তাহলে ২৬শে মার্চ স্বাধীনতা দিবস হলো কেন? ১৭ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ সাহেব ডিক্লারেশন অব ইন্ডিপেনডেন্স অব দ্য পিপলস রিপাবলিক অ্যান্ড গভর্নমেন্ট ঘোষণা করেছেন আম্রকাননে। তিনি তাঁর ঘোষণায় বলেছেন, ২৬শে মার্চ জিয়াউর রহমান স্বাধীনতা ঘোষণা করেছেন।’

জিয়াউর রহমান ফরম পূরণ করে বাকশালে যোগ দিয়েছিলেন—আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফের বক্তব্য সঠিক নয় বলে দাবি করেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত মেজর হাফিজ উদ্দিন আহম্মদ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা