kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

দোয়ারাবাজারে গ্রামবাসীর মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ১৪৪ ধারা জারি

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৪ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার ইদনপুর গ্রামে পাওনা টাকা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে শতাধিক লোক আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ইদনপুর ও গ্রামসংলগ্ন শ্যামলবাজারে ৭২ ঘণ্টার জন্য ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন। গতকাল বুধবার দুপুরে এ সংঘর্ষ হয়।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, ইদনপুর গ্রামের মৃত শরিয়ত আলীর ছেলে ফয়জুল ইসলাম ও চণ্ডিপুর গ্রামের মৃত জহুর আলীর ছেলে হারিছের মধ্যে পাওনা টাকা নিয়ে প্রথমে কথা-কাটাকাটি হয়। মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনায় সালিসও অনুষ্ঠিত হয়। সালিসের পরই বাড়ি ফেরার পথে হারিছ আলীর ছোট ভাই সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান হারুন মিয়ার ওপর অতর্কিত হামলা চালায় প্রতিপক্ষের লোকজন। এ ঘটনার জের ধরে বুধবার সকালে দুই গ্রামবাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। বিকেল ৩টা পর্যন্ত দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের শতাধিক লোক আহত হন।

আহতদের দোয়ারাবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল ও সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনায় এলাকার সালিসি ব্যক্তিত্বরা আগামী শনিবারের মধ্যে সালিসে বিষয়টি নিষ্পত্তির উদ্যোগ নিয়েছেন।

এদিকে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করায় উপজেলা প্রশাসন ইদনপুরসংলগ্ন শ্যামলবাজার এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে। বাজারের দোকানপাট বন্ধ থাকারও নির্দেশনা দিয়েছে প্রশাসন। দুপুরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) দুলন মিয়া ও দোয়ারাবাজার থানার ওসি সুশীল রঞ্জন দাস ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ওসি সুশীল রঞ্জন দাস বলেন, ‘আগামী শনিবারের মধ্যে বিষয়টি সালিসের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করার উদ্যোগ নিয়েছেন সালিসকারী ব্যক্তিরা। আমরা তাদের সহযোগিতা করব।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা