kalerkantho

শনিবার । ১৮ জানুয়ারি ২০২০। ৪ মাঘ ১৪২৬। ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

আইসিসির প্রতিনিধিদল

মিয়ানমারের সদস্য না হওয়া বিচারে বাধা নয়

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১২ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মিয়ানমার আন্তর্জাতিক ফৌজদারি আদালতের (আইসিসি) সদস্য না হলেও রোহিঙ্গা নিপীড়নের বিচারে বাধা নেই বলে জানিয়েছে আইসিসির প্রতিনিধিদল। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকার একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে ওই দল জানায়, আইসিসি মিয়ানমারের বিচার করবেন না। রাষ্ট্রের বিচার করা আইসিসির কাজ নয়। ব্যক্তিবিশেষের গুরুতর ফৌজদারি অপরাধের বিচার করার দায়িত্ব আইসিসির।

দলটি আরো জানায়, রোহিঙ্গারা যে মানবতাবিরোধী অপরাধের শিকার হয়েছে সে ব্যাপারে তারা নিশ্চিত। এখন আইসিসির কৌঁসুলির দপ্তরের কাজ হলো সেই অপরাধ প্রমাণ করা এবং অপরাধীদের চিহ্নিত করে বিচারের উদ্যোগ নেওয়া।

রোহিঙ্গাদের গণবাস্তুচ্যুতির অভিযোগের প্রাক-অনুসন্ধানে আইসিসির জুরিডিকশন, কমপ্লিমেন্টারি ও করপোরেট ডিভিশনের পরিচালক ফাকিসো মোচোচোকোর নেতৃত্বে প্রতিনিধিদলটি সাত দিন বাংলাদেশ সফর করে। তিনি জানান, তাঁর নেতৃত্বে আইসিসির কৌঁসুলির প্রতিনিধিদল রোহিঙ্গাদের গণবাস্তুচ্যুতির প্রেক্ষাপটের তদন্তের জন্য ‘অপারেশনাল অ্যাসেসমেন্ট’ করেছে।

তিনি আরো জানান, বিচারক অনুমোদন দিলে রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়নকারীদের বিরূদ্ধে তদন্ত করা কঠিন হবে না।

ফাকিসো মোচোচোকো বলেন, ‘আইসিসির কৌঁসুলি রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর দুর্ভোগের জবাবদিহি নিশ্চিত করতে অঙ্গীকারবদ্ধ। তদন্তের জন্য সব শর্ত পূরণ এবং অপরাধীদের জবাবদিহি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কৌঁসুলি কাজ করছেন। আমরাও এ লক্ষ্যে চেষ্টা করছি।’

তিনি বলেন, গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে প্রাক-অনুসন্ধানের কাজ শুরু হয়েছে। তবে এটি কোনো আনুষ্ঠানিক আইনি তদন্ত নয়। আইসিসির প্রসিকিউটর ‘প্রয়োজনীয় সময়ের মধ্যে’ প্রাক-অনুসন্ধান শেষে যদি নিশ্চিত হন, এখানে আনুষ্ঠানিক আইনি তদন্তের সুযোগ ও প্রয়োজন আছে তবে তিনি আইসিসির বিচারকের কাছে আনুষ্ঠানিক আইনি তদন্ত শুরুর অনুমতি চাইবেন।

প্রতিনিধিদলটি সাংবাদিকদের জানায়, সফরকালে তারা সরকারি প্রতিনিধি, এনজিও, নিপীড়িত রোহিঙ্গাদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তাদের বক্তব্য শুনেছে। তবে তারা কোনো তথ্য বা আলামত সংগ্রহ করেনি।

ফাকিসো মোচোচোকো তাঁর বক্তব্যের এক পর্যায়ে বলেন, বাংলাদেশে তাঁদের এই সফর ফলপ্রসূ বৈঠক এবং এই মানবিক বিপর্যয়ের ভয়াবহতা অনুধাবন করতে সহায়ক হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা