kalerkantho

শনিবার । ১৮ জানুয়ারি ২০২০। ৪ মাঘ ১৪২৬। ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

ব্যাংকের টাকা আত্মসাৎ

প্রধান আসামি ব্যাংক কর্মকর্তা মাহফুজ কারগারে

বাগেরহাট প্রতিনিধি   

১২ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাগেরহাটে সোনালী ব্যাংকের সাড়ে তিন কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় প্রধান আসামি ব্যাংকটির সাবেক কর্মকর্তা শেখ মাহফুজুর রহমানকে জেলহাজতে পাঠিয়েছেন আদালত। মাহফুজ দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর গতকাল সোমবার বাগেরহাটের সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিনের আবেদন করেন। বিচারক গোলক চন্দ্র বিশ্বাস জামিন নামঞ্জুর করেন।

মামলার নথি থেকে জানা গেছে, সদর উপজেলার মুক্ষাইট গ্রামের শেখ মাহফুজুর রহমান বাগেরহাট সোনালী ব্যাংকের ঋণ বিতরণ শাখায় জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ২০১২ সালের ২ আগস্ট থেকে ২০১৫ সালের ৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দায়িত্ব পালনকালে ঋণ বিতরণের নামে জালিয়াতি করে তিন কোটি ৪৪ লাখ ৮৯ হাজার ৬১০ টাকা আত্মসাৎ করেন। ব্যাংকের নিরীক্ষা ও তদন্তে বিষয়টি ধরা পড়ে। মাহফুজ পালিয়ে যান। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তাঁকে বরখাস্ত করে।

এ ঘটনায় ব্যাংকের তৎকালীন ম্যানেজার খান বাবলুর রহমান বাদী হয়ে মাহফুজুর রহমানকে আসামি করে ওই বছর ১ অক্টোবর বাগেরহাট মডেল থানায় একটি মামলা করেন। পরে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) খুলনার সহকারী পরিচালক আবুল হাসেম কাজি তদন্ত শেষে ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর ১৫ জনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন। তাঁরা হলেন মাহফুজুর রহমান, শাখাটির সাবেক ম্যানেজার শেখ মুজিবর রহমান, ক্যাশ শাখার জুনিয়র অফিসার জাহাঙ্গীর হোসেন ও ১২ জন গ্রাহক।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা