kalerkantho

শনিবার । ১৮ জানুয়ারি ২০২০। ৪ মাঘ ১৪২৬। ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

সেমিনারে তথ্য

বছরে তামাকজনিত রোগের চিকিৎসা ব্যয় ৩০ হাজার কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১২ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশে তামাকজনিত রোগের চিকিৎসায় বছরে ৩০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় হয়। এ ছাড়া তামাকজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে বছরে দেশে প্রায় এক লাখ ২৬ হাজার মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। অন্যদিকে তামাকজাত পণ্য থেকে সরকারের বছরে রাজস্ব আদায় হচ্ছে ২৩ হাজার কোটি টাকা। ফলে লাভের চেয়ে প্রাণহানি ও আর্থিক ক্ষতি অনেক বেশি হচ্ছে। যা সরকারের দেশকে তামাকমুক্ত করার অঙ্গীকারকে বাধাগ্রস্ত করছে।

গতকাল সোমবার ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ (ডাব্লিউবিবি) ট্রাস্টের উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ‘তামাকের স্বাস্থ্যক্ষতি রোধে তামাক কর নীতি প্রণয়নের প্রয়োজনীয়তা’ শীর্ষক এক সেমিনারে তথ্য জানানো হয়।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ন্যাশনাল প্রফেশনাল অফিসার ডা. সৈয়দ মাহফুজুল হক। সভাপতিত্ব করেন ডাব্লিউবিবি ট্রাস্টের পরিচালক গাউস পিয়ারী। আরো আলোচনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. রুমানা হক, দি ইউনিয়নের কারিগরি পরামর্শক সৈয়দ মাহবুবুল আলম, ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্টের কর্মসূচি ব্যবস্থাপক সৈয়দা অনন্যা রহমান।

সেমিনারে সিগারেটের ক্ষেত্রে নিম্ন স্তরের দেশীয় এবং বহুজাতিক ব্র্যান্ডের সিগারেটের ভিন্ন কর ব্যবস্থা তুলে নেওয়া, উচ্চ এবং মধ্যম স্তর একত্রিত করা এবং নিম্ন স্তরের সিগারেটের সর্বনিম্ন্ন দাম প্রতি ১০ শলাকার প্যাকেটের জন্য ৫০ টাকা নির্ধারণের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা