kalerkantho

শনিবার । ১৮ জানুয়ারি ২০২০। ৪ মাঘ ১৪২৬। ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

গৌরনদী, ডিমলা ও কোম্পানীগঞ্জ

তিন ছাত্রীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৪

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বরিশালের গৌরনদীতে এক মাদরাসাছাত্রী এবং নীলফামারীর ডিমলা ও নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় দুই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গৌরনদীর ঘটনায় ছাত্রীটির মা তিনজনের নামে গতকাল সোমবার সকালে থানায় মামলা করেছেন এবং দুই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ডিমলা ও কোম্পানীগঞ্জের ঘটনায় অভিযুক্ত দুজন গ্রেপ্তার হয়েছে। কালের কণ্ঠ’র প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

গৌরনদী ও আগৈলঝাড়া (বরিশাল) : গৌরনদী উপজেলার দক্ষিণ বিজয়পুর গ্রামের গনি বেপারীর ভাড়াটিয়া বাসা থেকে গতকাল সকালে গ্রেপ্তার দুজন হলো শেরপুর সদর থানার কালিয়াপাড়া গ্রামের সরোয়ার হোসেন (২১) এবং গাইবান্ধা সদর উপজেলার নশরতপুর গ্রামের মাহফুজুর রহমান সাদিক (১৮)। এ ঘটনায় অন্য অভিযুক্ত পটুয়াখালীর গলাচিপার রতনদিয়া ইটবাড়িয়া গ্রামের সাজ্জাদ হোসেন শাওন (১৯) পলাতক। এই তিনজন বন্ধু এবং স্থানীয় একটি টেক্সটাইল ইনস্টিটিউটের ছাত্র।

মামলার এজাহারে জানা গেছে, মাদরাসায় যাওয়া-আসার পথে ছাত্রীটির সঙ্গে পরিচয় হয় শাওনের। কয়েক দিন আগে শাওন তার অসুস্থতার কথা বলে ছাত্রীটিকে গনি বেপারীর ভাড়াটিয়া বাসায় ডেকে নেয়। এ সময় ছাত্রীটিকে জুসের সঙ্গে কৌশলে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে অচেতন করে ধর্ষণ করে শাওন, সরোয়ার ও সাদিক। পরে ধর্ষণের চিত্র মোবাইল ফোনে ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছাড়ার হুমকি দিয়ে বিভিন্ন সময়ে ছাত্রীটিকে তারা ধর্ষণ করে।

নীলফামারী : ডিমলায় স্কুলছাত্রী ধর্ষণে অভিযুক্ত সিরাজুল ইসলামকে (৫৫) গতকাল সকালে উপজেলার পূর্ব ছাতনাই গ্রাম থেকে আটক করে পুলিশ। সে ওই গ্রামের জাবেদ আলীর ছেলে।

নির্যাতিতের পরিবার ও পুলিশ জানায়, সিরাজুল ইসলাম গত রবিবার বিকেলে শিশুটিকে বাড়িতে একা পেয়ে ফুসলিয়ে বাড়ির কাছে তিস্তা চরের বাঁধে নিয়ে ধর্ষণ করে। শিশুটির চিৎকারে স্থানীয় লোকজন ছুটে এলে সিরাজুল পালিয়ে যায়। পরে মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে রাতে নীলফামারী সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করায়। প্রাথমিকভাবে শিশুটিকে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে বলে জানান হাসপাতালের চিকিৎসক শারমিন আকতার।

নোয়াখালী : রবিবার রাতে কোম্পানীগঞ্জে এক স্কুলছাত্রী (১৫) ধর্ষণের শিকার হয়। এ ঘটনায় ছাত্রীর বাবা গতকাল কোম্পানীগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন। পরে পুলিশ অভিযুক্ত চরকাঁকড়া ইউনিয়নের সফি সর্দারবাড়ীর কামরুল হাসান বিপ্লবকে (২১) গ্রেপ্তার করে।

অভিযোগে বলা হয়, স্কুলে যাওয়া-আসার পথে বিপ্লব প্রায়ই মেয়েটিকে উত্ত্যক্ত করত। রবিবার রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে মেয়েটি তাদের ঘর থেকে বের হয়। এ সময় ওত পেতে থাকা বিপ্লব মেয়েটিকে জোর করে তুলে নিয়ে পাশের বাগানে ধর্ষণ করে। মেয়েটির চিৎকারে লোকজন মেয়েটিকে উদ্ধার ও বিপ্লবকে আটক করে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা