kalerkantho

বুধবার। ১৯ জুন ২০১৯। ৫ আষাঢ় ১৪২৬। ১৫ শাওয়াল ১৪৪০

এমপিকে ফোন বিদ্যুৎ এলো তাৎক্ষণিক

মারুফ হোসেন, শিবালয় (মানিকগঞ্জ)   

৯ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার দক্ষিণ তেওতা গ্রামের ঋষিপাড়ায় শতাধিক লোকের বসবাস। চারপাশে বাঁশঝাড় আর গাছপালা দিয়ে ঘেরা পাড়াটি। সন্ধ্যা নামলেই নিস্তব্ধ হয়ে পড়ে। বাসিন্দারা সবাই হিন্দু ধর্মাবলম্বী ও ঋষি সম্প্রদায়ের। বাঁশ-বেত দিয়ে ঝুড়ি বানিয়ে বিক্রয় করে এদের জীবিকা নির্বাহ চলে। পাড়ায় বিদ্যুৎ নেই, রাতে কাজ করা যায় না, ছেলে-মেয়ের পড়ালেখারও অসুবিধা হয়। দরিদ্র পরিবারগুলো অতি কষ্টে ৬০ হাজার টাকা জমিয়ে দিয়েছিল এক দালালকে। এরপর বিদ্যুতের খুঁটি বসলেও সংযোগ আর আসে না। দালাল দাবি করে বসে আরো এক লাখ টাকা। এত টাকা জোগাড়ও হয় না, আর বিজলিও আসে না।

গত সপ্তাহে স্থানীয় এক ছাত্রলীগ নেতা বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সদস্য এ এম নাঈমুর রহমান দুর্জয়কে ফেসবুক মেসেঞ্জারে জানান। শোনার পর দুর্জয় তাত্ক্ষণিক বিষয়টি মানিকগঞ্জ পল্লী বিদ্যুতে কর্মরত জিএমকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন। গত বুধবার পাড়ার ৩০ বাড়িতে বিদ্যুতের সংযোগ দেয় কর্তৃপক্ষ।

মানিকগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ও বিসিবির পরিচালক এ এম নাঈমুর রহমান দুর্জয় কালের কণ্ঠকে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া। আমি সেই লক্ষ্যে আমার নির্বাচিত এলাকায় কাজ করছি।

মন্তব্য