kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৭ জুন ২০১৯। ১৩ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

চকবাজার ট্র্যাজেডি

শনাক্ত আরো তিনজনের লাশ হস্তান্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর চকবাজারের চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ১৪ দিন পর ডিএনএ পরীক্ষায় পরিচয় শনাক্ত ১১ জনের মধ্যে বাকি তিনজনের মরদেহ গতকাল বৃহস্পতিবার স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করেছে পুলিশ।

চকবাজার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুরাদুল ইসলাম জানান, দুপুরে ইব্রাহিম (৩০) ও নুরুল হক (২৫) নামের দুজনের এবং রাতে দুলাল কর্মকারের (৪০) দেহাবশেষ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গ থেকে স্বজনদের কাছে বুঝিয়ে দিয়েছেন। রিকশাচালক ইব্রাহিমের গ্রামের বাড়ি শরীয়তপুরের ঘোসাইহাটে। তাঁর স্ত্রী রোকসানা মর্গে এসে লাশ বুঝে নেন।

চুড়িহাট্টার সবজি বিক্রতা নুরুল হকের বাড়ি কিশোরগঞ্জে অষ্টগ্রামে। তাঁর মরদেহ গ্রহণ করে শ্বশুর ফজলুর রহমান বলেন, চুড়িহাট্টা মসজিদের সামনে তরকারি বিক্রি করত নুরুল। ঢাকায় থাকত ইসলামবাগে। বউ রহিমা আক্তার আর এক বছরের ছেলে আলামিন কিশোরগঞ্জে গ্রামের বাড়িতে থাকে।

২০ ফেব্রয়ারি চুড়িহাট্টায় অগ্নিকাণ্ডের পর ফায়ার সার্ভিস ৬৭ জনের লাশ উদ্ধার করে। গত সপ্তাহে চিকিৎসাধীন মারা যায় আরো চারজন। এই ৭১ জনের মধ্যে প্রথম দফায় ৪৬, পরে দুজন এবং চিকিৎসাধীন থেকে মৃত চারজনের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ১৯ দেহাবশেষ খণ্ডিত ও বিকৃত হওয়ায় এগুলো শনাক্তের জন্য পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগে (সিআইডি) ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করে। ২৩ জন নিখোঁজ আছে বলে দাবি করে সেসব পরিবারের ৪৮ সদস্য ডিএনএ নমুনা দেয়। সে নমুনা যাচাই করে বুধবার দুই নারী ও ৯ জন পুরুষের পরিচয় শনাক্ত করে সিআইডি। বুধবারই এই আটজনের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এখনো নিখোঁজ আছে ১২ জন। সিআইডির ল্যাবরেটরিতে দেহাবশেষ আছে আটটি।

মন্তব্য