kalerkantho

সোমবার । ২১ অক্টোবর ২০১৯। ৫ কাতির্ক ১৪২৬। ২১ সফর ১৪৪১       

বাগাতিপাড়ায় দোয়া, আলোচনা

হাতেখড়ির স্কুলে হবে ‘পলান সরকার ভবন’

নাটোর প্রতিনিধি   

৪ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হাতেখড়ির স্কুলে হবে ‘পলান সরকার ভবন’

আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আলোর ফেরিওয়ালা পলান সরকারকে স্মরণ করল তাঁর জন্মস্থান নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর শিশুরা। গতকাল রবিবার মূল অনুষ্ঠান হয় পলান সরকারের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার হাতেখড়ি নেওয়া স্কুল বাগাতিপাড়া উপজেলার নূরপুর মালঞ্চি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। বাবার মৃত্যুর পর মায়ের সঙ্গে তিনি রাজশাহীর বাঘায় চলে গিয়েছিলেন।

বিদ্যালয়টির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আফরোজ্জামান নিপুনের সভাপতিত্বে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ফাইজুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষক মাহমুদা সুলতানা, পলান সরকারের ভাতিজা প্রভাষক আব্দুল হালিম, সমাজকর্মী মোস্তাফিজুর রহমান মনি প্রমুখ বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানে ওই বিদ্যালয়ে ‘পলান সরকার ভবন’ নামে একটি নতুন ভবনের নামকরণ এবং  ভবনে ‘পলান সরকার স্মৃতি পাঠাগার’ নামে একটি সংরক্ষিত কক্ষ রাখার ঘোষণা দেন স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহমুদা সুলতানা আক্ষেপ করে বলেন, ২০২১ সালে পলান সরকারকে তাঁর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সম্মাননা দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল। এর আগেই তিনি চলে গেলেন। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ফাইজুল ইসলাম বলেন, পলান সরকার বাগাতিপাড়া উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তাঁর আলোয় আলোকিত হয়ে এ উপজেলার শিশু শিক্ষার্থীরাও যেন একদিন বই পড়ায় আগ্রহী হয় সে জন্য প্রতিটি বিদ্যালয়ে দোয়া ও আলোচনা অনুষ্ঠানের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

বাগাতিপাড়া উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়,  উপজেলার ৫৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রায় ১৩ হাজার ছাত্র-ছাত্রী ও সাড়ে তিন শ শিক্ষক-কর্মচারী পলান সরকারের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করেন। গতকাল সকাল সোয়া ৯টায় সমাবেশ শেষে খুদে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বাগাতিপাড়ায় জন্ম নেওয়া পলান সরকারের বইপড়া আন্দোলনের গল্প তুলে ধরেন শিক্ষকরা। তাঁরা শিশুদের বলেন, বই-ই মানুষকে সঠিক পথ দেখায়। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের উদ্যোগে এসব কর্মসূচি পালন করে বিদ্যালয়গুলো।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা