kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১            

শরীয়তপুরে দুই পরিবারে মাতম থামছেই না

শরীয়তপুর প্রতিনিধি   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চকবাজারের চুরিহাট্টা গলিতে অগ্নিদগ্ধ হয়ে শরীয়তপুরের দুই ব্যক্তি প্রাণ হারিয়েছেন। একজন চুরহাট্টার ওয়াহেদ ম্যানশনের মদিনা ডেকোরেটরে শ্রমিক বিল্লাল হোসেন চৌকিদার (৪৫)। আরেকজন পাশের বড়কাটরা এলাকার একটি মাদরাসার শিক্ষক মুফতি ওমর ফারুক (৩৫)।

বিল্লালের বাড়ি শরীয়তপুর সদর উপজেলার গ্রামচিকন্দিতে। আর ওমর ফারুকের বাড়ি নড়িয়া উপজেলার পদ্মার দুর্গম চরাঞ্চল চরআত্রা মুন্সিকান্দি গ্রামে।

বিল্লালের স্ত্রী রুমা বেগম বলেন, ‘আমার স্বামী বাসা থেকে রাত সাড়ে ৯টার দিকে কাজের উদ্দেশে চকবাজার মদিনা ডেকোরেটরে যায়। ঘটনার ১৫ মিনিট আগে তার সঙ্গে আমার শেষ কথা হয়। যখন আগুন লাগে তখন বারবার ফোন দিই, কিন্তু তার ফোন বন্ধ পাই। এর মধ্যে খবর আসে, নিহতদের মরদেহ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। সেখানে গিয়ে স্বামীর লাশ পাই।’

অন্যদিকে মুফতি ওমর ফারুক গত বুধবার রাতে মাদরাসায় ফেরার পথে চুরিহাট্টা গলিতে আটকা পড়েন। সকালে উদ্ধারকর্মীরা তাঁর লাশ উদ্ধার করেন।

ওমর ফারুকের বাবা করিম মাদবর বলেন, ‘আমার বাবার ছুটিতে বাড়ি আশার কথা ছিল। তার মাকে ডাক্তার দেখাতে ঢাকা নেওয়ার কথা ছিল। বাবা তো আর বাড়ি এলো না, আর আসবেও না। ওর মাকে কী জবাব দেব?’

শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের বলেন, দুজনের পরিবার সরকার ঘোষিত সব অনুদান পাবে। এ ছাড়া জেলা প্রশাসন দুজনের পরিবারকে সব ধরনের সহায়তা দেবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা