kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

শামীমার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিল হচ্ছে

জুয়েল রাজ, লন্ডন থেকে   

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শামীমার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিল হচ্ছে

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আইএস নারী জঙ্গি শামীমা বেগমের নাগরিকত্ব বাতিল করার সিদ্ধান্তের কথা তাঁর পরিবারকে জানিয়ে দিয়েছে ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার ব্রিটিশ হোম সেক্রেটারি স্বাক্ষরিত চিঠিটি পূর্ব লন্ডনে শামীমার পরিবারকে পৌঁছে দেয় হোম অফিস। ব্রিটিশ নিউজ চ্যানেল আইটিভি শামীমার মায়ের কাছে লেখা চিঠিটির বিস্তারিত প্রকাশ করেছে। চিঠিতে বলা হয়, ‘আপনার মেয়ের সর্বশেষ অবস্থা পর্যালোচনা করে তাঁর ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন হোম সেক্রেটারি। চিঠির সঙ্গে সংযুক্ত ডকুমেন্টটি এ বিষয়ক।’ এদিকে শামীমার আইনজীবী তাসনিম আখঞ্জি টুইট বার্তায় জানিয়েছেন, কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তে পরিবার খুবই মর্মাহত, তারা আইনি লড়াইয়ের কথা ভাবছে। ব্রিটিশ আইন অনুযায়ী, হোম সেক্রেটারির নাগরিকত্ব বাতিল করার অধিকার থাকলেও কাউকে রাষ্ট্রহীন করতে পারেন না।

এদিকে ব্রিটিশ বিভিন্ন গণমাধ্যমে অনেকেই দাবি করেছে শামীমাকে বাংলাদেশে প্রেরণের। শামীমার মা-বাবা দ্বৈত নাগরিকত্ব বহন করলেও শামীমা শুধুই ব্রিটিশ নাগরিক বলে জানা গেছে। লন্ডনের ইমিগ্রেশন আইনজীবী ব্যারিস্টার আবুল কালাম চৌধুরী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘যে কারণে ব্রিটেন শামীমার নাগরিকত্ব বাতিল করেছে, একই কারণে বাংলাদেশ শামীমাকে গ্রহণে অস্বীকৃতি জানাতে পারে। প্রথমত শামীমাকে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব প্রমাণ করতে হবে। দ্বিতীয়ত শামীমা ব্রিটেনে জন্ম এবং বেড়ে উঠেছেন। তাঁর উগ্র মতবাদের দীক্ষা তিনি ব্রিটেনেই নিয়েছেন। এতে বাংলাদেশের কোনো দায় নেই।’

‘শামীমা বাংলাদেশি নন’ : এদিকে কূটনৈতিক প্রতিবেদক জানান, যুক্তরাজ্য থেকে সিরিয়ায় জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসে যোগ দেওয়া শামীমা বেগম বাংলাদেশি নন। তাঁর জন্মস্থানও বাংলাদেশ নয়। আর এসব কারণে তাঁকে বাংলাদেশের গ্রহণ করার প্রশ্নই ওঠে না। ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গতকাল বুধবার রাতে এক বিবৃতিতে এ কথা জানিয়েছে।

এদিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, শামীমা বেগমের নাগরিকত্বের বিষয়টি যুক্তরাজ্যের এখতিয়ার। এখানে বাংলাদেশের কিছুই করার নেই। যুক্তরাজ্য শামীমার নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার পর ‘বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত’ বা ‘বাংলাদেশি’ হওয়ায় তাঁকে বাংলাদেশে পাঠানো হতে পারে—বিভিন্ন গণমাধ্যমে গতকাল দিনভর এমন ইঙ্গিতের পর রাতে বাংলাদেশ সরকার ওই সম্ভাবনা নাকচ করে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা