kalerkantho

শুক্রবার  । ১৮ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৮ সফর ১৪৪১              

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ এবং প্রতিবেদকের বক্তব্য

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কালের কণ্ঠ’র প্রথম পাতায় গত দুই ফেব্রুয়ারি ‘ডেমরা-যাত্রাবাড়ী মালিক সমিতির নামে চাঁদায় ফোলে খালেক’ শিরোনামে  প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ করেছেন আবদুল খালেক। উল্লিখিত সংবাদে একজন লেগুনা মালিকের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়, ‘খালেক বলে দেন সজল মোল্লা ও পুলিশকে টাকা  দিতে হয়।’ প্রতিবাদলিপিতে তিনি জানান, বাস্তবে তিনি মালিক বা অন্য কারো কাছে কখনো বলেননি সজল মোল্লাকে টাকা দিতে। তিনি কখনো সজল মোল্লাকে টাকা দেন না। এ ছাড়া প্রকাশিত সংবাদে তাঁর যে জমির কথা বলা হয়েছে, ওই জমি তিনি অল্পদামে কিনেছেন ১৯৭২ সালে। সংবাদে উল্লিখিত ফ্ল্যাটটি তিনি ব্যাংকের ঋণের টাকায় কিনেছেন।

প্রতিবেদকের বক্তব্য

প্রকাশিত সংবাদে সজল মোল্লা ও পুলিকে টাকা দিতে হয় বলে যে বক্তব্য প্রকাশিত হয়েছে তা কালের কণ্ঠকে বলেছেন একজন লেগুনা মালিক। এটা প্রতিবেদককে খালেক বলেননি। ওই লেগুনা মালিকের ধারণ করা বক্তব্য কালের কণ্ঠ’র কাছে সংরক্ষিত আছে। এ ছাড়া প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়েছে আবদুল খালেক কাজলার ভাঙ্গা প্রেস এলাকায় ১০ কাঠা জমি ক্রয় করেছেন এবং যাত্রাবাড়ী থানার ৪ নম্বর গেট এলাকায় তাঁর একটি ফ্ল্যাট রয়েছে। পাঠানো প্রতিবাদে আবদুল খালেক জমি ও ফ্ল্যাট থাকার কথা স্বীকার করে বলেছেন, জমি তিনি ১৯৭২ সালে কিনেছেন এং ফ্ল্যাট কিনেছেন ব্যাংকঋণে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা