kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ নভেম্বর ২০১৯। ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মেয়র পদপ্রার্থী আতিকের পাশে পোশাক খাতের ব্যবসায়ীরা

সুস্থ ও সচল ঢাকার অঙ্গীকার ডিএনসিসি প্রার্থীর

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মো. আতিকুল ইসলামকে মেয়র পদে সমর্থন জানালেন পোশাক ও বস্ত্র খাতের সব ব্যবসায়ী নেতা। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর মহাখালীর রাওয়া কনভেনশন হলে এক মতবিনিময়সভায় তৈরি পোশাক ও বস্ত্র খাতের তিন শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএ, বিকেএমইএ ও বিটিএমইএর যৌথ সভায় ব্যবসায়ীরা এ সমর্থন ব্যক্ত করেন।

বিজিএমইএ সাবেক সভাপতি ও মেয়র পদপ্রার্থী মো. আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতির ফেডারেশন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএর সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান, বিজিএমইএ জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ফারুক হাসান, সহসভাপতি এস এম মান্নান কচি, এফবিসিসিআইয়ের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, সহসভাপতি মুনতাকিম আশরাফ, বিটিএমইএ সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন, বিকেএমইএ সহসভাপতি মনসুর আহমেদ, সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী, খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুস সালাম মুর্শেদী প্রমুখ। সভা সঞ্চালনা করেন বিজিএমইএ সহসভাপতি মোহাম্মদ নাছির।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের উন্নয়নে ব্যবসায়ীদের অবদানের স্বীকৃতি দিয়েছেন। ফলে বর্তমান মন্ত্রিসভায় অর্থ, শিল্প, বাণিজ্যসহ গুরুত্বপূর্ণ অনেক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব ব্যবসায়ীদের দিয়েছেন। তাঁরা বলেন, ‘ডিএনসিসি সদ্যঃপ্রয়াত মেয়র আনিসুল হক ছিলেন দেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যমণি। কোনো রাজনৈতিক পরিচিতি না থাকার পরও তাঁকে প্রধানমন্ত্রী মেয়র পদে মনোনয়ন দিয়েছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী এবার আতিকুল ইসলামের হাতে বঙ্গবন্ধুর নৌকা তুলে দিয়েছেন। আমাদের আশা, তিনি এবারও কোনো ভুল সিদ্ধান্ত নেননি।’

জনগণের যেকোনো অভিযোগ ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সমাধান করা হবে আশ্বাস দিয়ে প্রার্থী আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমি জনগণের সেবক হতে চাই। গত ১০ বছর আপনাদের মধ্যে যেমনটা ছিলাম তেমনটাই থাকতে চাই।’ সুস্থ ও সচল ঢাকার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, নির্বাচিত হলে ঢাকার বিশুদ্ধ বাতাস ফিরিয়ে আনা হবে। নগরীর সড়কপথ, খোলা জায়গা, ভবন ও স্থাপনার ছাদে পরিকল্পিত বনায়ন করা হবে। ‘সবাই মিলে সবার ঢাকা, সুস্থ সচল আধুনিক ঢাকা’—এ স্লোগান তুলে ধরে আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘রাজধানীবাসী এখন আর ভাত-রুটি চায় না, তারা চায়, খেলার মাঠ, মুক্ত ফুটপাত, যানজট ও জলজট থেকে মুক্তি। আমি অঙ্গীকার করছি, নির্বাচিত হলে এসবকে অগ্রাধিকার দেব।’ তিনি আশ্বাস দেন, জন্ম, মৃত্যু ও কর সার্টিফিকেট হবে অনলাইনে। এ জন্য প্রয়োজনীয় অ্যাপস তৈরি করা হবে। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী সমুদ্র থেকে আকাশ পর্যন্ত জয় করেছেন। ইনশাআল্লাহ আমরা ঢাকাবাসীর সমস্যা সমাধানে জয় নিশ্চিত করতে পারব।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা