kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পদ্মা সেতু

জাজিরা প্রান্তে সপ্তম স্প্যান বসছে আজ

মুন্সীগঞ্জ ও শরীয়তপুর প্রতিনিধি   

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তের সপ্তম স্প্যান (সুপারস্ট্রাকচার) আজ বুধবার বসতে যাচ্ছে। স্প্যানটি গতকাল মঙ্গলবার সকালে মাওয়া থেকে ভাসমান ক্রেনে করে জাজিরা প্রান্তে নেওয়া হয়েছে। যদি আবহাওয়াসহ সব কিছু অনুকূল থাকে তবে আজই জাজিরা প্রান্তে সেতুর ৩৫ ও ৩৬ নম্বর পিলারের ওপর সপ্তম স্প্যান (৬ই) বসবে বলে কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেছে। আর এর মাধ্যমে জাজিরা প্রান্তে পদ্মা সেতুর ১ দশমিক ৫ কিলোমিটার (এক হাজার ৫০ মিটার) দৃশ্যমান হবে। এরই মধ্যে মাওয়া প্রান্তে দৃশ্যমান আছে ১৫০ মিটার।

সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলী জানান, ধূসর রঙের এই সপ্তম স্প্যানের দৈর্ঘ্য ১৫০ মিটার, ওজন তিন হাজার ১৪০ টন। তিন হাজার ৬০০ টন ধারণক্ষমতার ক্রেন ‘তিয়ান ই’ সপ্তম স্প্যানটি মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের কুমারভোগ পদ্মা সেতু কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডের জেটি থেকে মঙ্গলবার সকালে বহন করে জাজিরার উদ্দেশে রওনা দেয়। বিকেল নাগাদ এটি জাজিরা প্রান্তের ৩৫ ও ৩৬ নম্বর পিলারের কাছে পৌঁছে। মাওয়া প্রান্তে বসানো একটি স্প্যানসহ পদ্মা সেতুতে বসানো স্প্যানের সংখ্যা এখন দাঁড়াবে আটে। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর বসানো হয় প্রথম স্প্যান।

ওই প্রকৌশলী আরো জানান, পদ্মা সেতুর কাজ এখন দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে। গত ৪ ফেব্রুয়ারি চীনাদের নববর্ষ ছিল। পদ্মা সেতুতে নিয়োজিত শতাধিক চীনা প্রকৌশলী ও শ্রমিকরা ছুটি নেন। তাই কাজে কিছুটা হলেও ধীরগতি লক্ষ করা যায়। এ ছাড়া যাঁরা দেশে ছিলেন তাঁদের জন্য প্রকল্প এলাকায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। কাজের গতি বাড়াতে বছরের শুরুতে যোগ হয়েছে আরো নতুন যন্ত্রপাতি। যত দ্রুত সম্ভব সেতুর কাজ শেষ করতে মন্ত্রণালয় থেকে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে তাগাদা দেওয়া হচ্ছে। ছুটিতে যাওয়া চীনারা ফিরে এলে কাজের গতি আবার বাড়বে। ২৯৪টি পাইলের মধ্যে এ পর্যন্ত ২৬৩টি পাইল ড্রাইভ শেষ হয়েছে। জুনের মধ্যে পিলারগুলোতে পাইল ড্রাইভ শেষ হবে। আর এর পরেই বাকি পিলারগুলো ওপরের দিকে উঠতে থাকবে। এ পর্যন্ত ১৯টি পিলারের কাজ পুরোপুরি শেষ হয়েছে। জাজিরা প্রান্তে স্প্যানের ওপর বসানো হয়েছে এক হাজার ৪৩০টি রেলওয়ে স্ল্যাব। এ পর্যন্ত রোডওয়ে স্ল্যাব তৈরি করা হয়েছে ৪০০টির বেশি।

এদিকে মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে বর্তমানে ১২টি স্প্যান মজুদ আছে। জায়গাস্বল্পতার কারণে স্প্যান আনা হচ্ছে না চীন থেকে। চীনে প্রস্তুত রয়েছে বেশ কিছু স্প্যান। কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডের স্প্যানগুলো পিলারের ওপর বসাতে বসাতে চীন থেকে আরো নতুন স্প্যান চলে আসবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা