kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ নভেম্বর ২০১৯। ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

নাঙ্গলকোটে সড়কের গাছ কেটে নিলেন ইউপি চেয়ারম্যান!

নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা) প্রতিনিধি   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে উপজেলা বনায়ন উন্নয়নের আওতায় লাগানো কয়েক শ গাছ মূল অংশীদারকে না জানিয়ে কেটে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ অভিযোগ উঠেছে পেরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির মজুমদারের বিরুদ্ধে।

২০০৫ সালে চেহরিয়া গ্রামের সামছুল হক উপজেলা বনায়ন উন্নয়নের আওতায় ইউনিয়ন পরিষদের সঙ্গে অংশীদারির ভিত্তিতে নাঙ্গলকোট-বাঙ্গড্ডা সড়কের দুই পাশে তিন শতাধিক গাছের চারা রোপণ করেন। কিন্তু স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির মজুমদার কাউকে না জানিয়ে গত বৃৃহস্পতিবার গাছগুলো বিক্রি করে দেন।

দৌলতপুর গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সামছুল হক গাছগুলো রোপণ করেন। তিনি পরিচর্যা করেই গাছগুলো বড় করেন। রাস্তা প্রশস্ত করার অজুহাতে গাছগুলো স্থানীয় চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির মজুমদার ও মাস্টার আব্দুল খালেক ভাগ-বাটোয়ারা করে নিয়ে গেছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নসিমনচালক বলেন, কয়েকটি গাছ চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির মজুমদার ফার্নিচার বানানোর জন্য কাকৈরতলা বাজারে দুলালের স মিলে নিয়ে গেছেন।

মাস্টার আব্দুল খালেকের বাড়ির সামনে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে গাছের ১০-১২টি টুকরো পড়ে আছে। অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির মজুমদার গাছগুলো স্থানীয় মসজিদে দান করেছেন।’

হুমায়ুন কবির মজুমদারকে ফোন করা হলে ব্যস্ততা দেখিয়ে তিনি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। তার আগে বলেন, ‘ইউপি কার্যালয়ে এসে দেখা করতে পারেন।’

উপজেলা বন কর্মকর্তা মোয়াজ্জেম হোসেন খন্দকার জানান, তিনি বিষয়টি সম্পর্কে অবগত নন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা