kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

তথ্যমন্ত্রী বললেন

টিআইবির প্রতিবেদন রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত

নিজস্ব প্রতিবদেক, চট্টগ্রাম   

১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তথ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) প্রতিবেদন রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। ওই প্রতিবেদনে ঐক্যফ্রন্টের বক্তব্য প্রতিফলিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল ১১টায় চট্টগ্রামের দেওয়ানজী পুকুরপারে নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দেশে কয়েকটি সংগঠন আছে, যারা দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করা নয়, বরং দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার কাজে লিপ্ত। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে এবং বলে তাদের গবেষণাপ্রসূত প্রতিবেদন। আমরা অতীতেও দেখেছি, তারা যে গবেষণার কথা বলে সে গবেষণাগুলো প্রকৃতপক্ষে কোনো সঠিক গবেষণা নয়। বেশির ভাগ প্রতিবেদন ত্রুটিপূর্ণ, একপেশে, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।’

ড. হাছান মাহমুদ আরো বলেন, ‘পদ্মা সেতু নিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল মনগড়া কল্পকাহিনি সাজিয়েছিল। দেশের বিরুদ্ধে নানা ধরনের প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল। পদ্মা সেতুতে যে দুর্নীতি হয়নি সেটি শুধু দেশে নয়, বিদেশেও প্রমাণিত হয়েছে। বিশ্বব্যাংক কানাডার আদালতে মামলা করেছিল। সে মামলায় বিশ্বব্যাংক হেরে গেছে। এরপর টিআইবিসহ যে সমস্ত সংস্থা পদ্মা সেতু নিয়ে দুর্নীতির কল্পকাহিনি সাজিয়েছিল তাদের উচিত জনগণের কাছে ক্ষমা চাওয়া।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচন নিয়ে গবেষণার কথা বলে যে বক্তব্য বা প্রতিবেদন গত মঙ্গলবার টিআইবি প্রকাশ করেছে, এই প্রতিবেদন আর বিএনপির বক্তব্যের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। প্রকৃতপক্ষে এটি বিএনপি-জামায়াতের পক্ষে টিআইবি একটি প্রতিবেদন দিয়েছে মাত্র। অন্য কিছু নয়।’ ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘এই নির্বাচন দেশে-বিদেশে সব জায়গায় প্রশংসিত হয়েছে। যারা আমাদের দেশে নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করতে এসেছিল, তারা সবাই এই নির্বাচনের প্রশংসা করেছে। এই নির্বাচন অত্যন্ত উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্যে উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে।’

টিআইবির বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘টিআইবি বেশ কয়েক বছর ধরে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, ত্রুটিপূর্ণ গবেষণার নামে যে সমস্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, এতে টিআইবির গ্রহণযোগ্যতা নষ্ট হয়ে গেছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা