kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৫ রবিউস সানি          

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ১০০ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা

দুর্নীতি রোধে শুদ্ধি অভিযানসহ ১২ দফা কর্মকৌশল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্বাস্থ্য খাতে সব স্তরে দুর্নীতি রোধে শিগগিরই শুদ্ধি অভিযান পরিচালনাসহ ১০০ দিনের বিশেষ কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। ১২ দফা লক্ষ্য নিয়ে গতকাল বুধবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি ‘আগামী ১০০ দিনের কর্মসূচি’ ঘোষণা করেন। এ সময় তাঁর সঙ্গে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মো.  মুরাদ হাসান, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব জি এম সালেহ উদ্দিন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোস্তাফিজুর রহমানসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ঘোষিত ‘আগামী ১০০ দিনের কর্মসূচি’ বাস্তবায়নে ১২ দফা কর্মকৌশলের মধ্যে রয়েছে—সরকারের নির্বাচনী ইশতেহারে ঘোষিত কার্যক্রমের ভিত্তিতে কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ সেবা সপ্তাহ উদ্‌যাপন, যেসব নতুন প্রকল্পের ডিপিপি প্রস্তুত হয়েছে সেগুলোতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের পর পরিকল্পনা কমিশনে প্রেরণ; মন্ত্রণালয় থেকে মাঠপর্যায়ের কার্যক্রমের তদারকির প্রক্রিয়া চালু, বিশেষ করে যন্ত্রপাতি, জনবল কর্মক্ষেত্রে উপস্থিতি তদারকি, মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের মাঠপর্যায়ের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন কার্যক্রম সরেজমিন পরিদর্শন।

এ ছাড়া স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ এবং স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিবদ্বয় বিভাগীয় পর্যায়ে প্রতিষ্ঠান ও কার্যক্রমসমূহ পরিদর্শনের জন্য বিভাগীয় পর্যায়ে সফর করবেন, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের বিভিন্ন পদে ইতিমধ্যে গৃহীত পদোন্নতি প্রক্রিয়া সম্পন্ন, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে যথাযথ প্রচার-প্রচারণা, সব হাসপাতালে সহজে দৃশ্যমান সাইনবোর্ডসহ নিওন সাইনের সাইনবোর্ড স্থাপন, হাসপাতালে প্রদেয় সেবা ও ইউজার চার্জের তালিকা যথাযথভাবে প্রদর্শন নিশ্চিত করা, স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণের ক্ষেত্রে সেবাগ্রহীতারা যেসব সমস্যার সম্মুখীন হন সেসব সমস্যা এবং তার সমাধানের বিষয়ে সেবাগ্রহীতাদের পরামর্শ গ্রহণ।

এ কর্মসূচি ঘোষণাকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালকে বিশ্বের অন্যতম আধুনিক হাসপাতালে রূপান্তর করার কাজ হাতে নেওয়া হয়েছে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা