kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

চারজনের নামে রংপুরে মামলা

রংপুর অফিস   

১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রংপুরে সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে অডিটর ও পাট কর্মকর্তাসহ চারজনের নামে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল বুধবার মেট্রোপলিটন কোতোয়ালি থানায় দুটি ও গঙ্গাচড়া থানায় একটি মামলা করেন রংপুর দুদকের সহকারী পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ২৯ মার্চ রংপুর বিভাগীয় কন্ট্রোলার অব অ্যাকাউন্টস (ডিসিএ) কার্যালয়ে দায়িত্বরত অডিটর আশরাফুল ইসলাম অনলাইনে অডিটর সাইফুল ইসলামের ইউজার আইডি ব্যবহার করে ত্রাণ শাখার কোড নম্বর ৪৯০০-এর বিপরীতে টোকেন নম্বর ০৬০৬৯৫ এন্ট্রি দেন। বিষয়টি কোডের দায়িত্বরত অডিটর এমদাদুল হকের কাছে উপস্থাপন না করে বিল অনুমোদন দেন। টোকেনের বিপরীতে গত বছরের ১ এপ্রিল জনৈক রেজ্জাক খানের নামে এক কোটি ৫০ লাখ টাকার চেক ইস্যু করেন। পরদিন ২ এপ্রিল দেড় কোটি টাকা রেজ্জাক খানের নামে বিল এন্ট্রি দেওয়া হয়। রেজ্জাক খান তাঁর নিজ নামীয় ইষ্টার্ণ ব্যাংক রংপুর শাখায় জমা দিয়ে ৬০ লাখ টাকা তোলেন। এ ঘটনায় অডিটর অশরাফুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম ও রেজ্জাক খানের নামে চেক জালিয়াতিসহ বিভিন্ন ধারায় মামলা করা হয়েছে।

অন্যদিকে সাবেক উপজেলা পাট উন্নয়ন কর্মকর্তা ও বর্তমানে রংপুর পাট অধিদপ্তরের কর্মকর্তা এ কে এম মাহবুব আলম বিশ্বাসের বিরুদ্ধে ১৫ লাখ টাকার বেশি আত্মসাতের অভিযোগে কোতোয়ালি ও গঙ্গাচড়া থানায় আলাদা দুটি মামলা করা হয়েছে। রংপুর দুদকের সহকারী পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, মামলায় উল্লিখিত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রাথমিক তদন্তে প্রমাণ পাওয়ায় তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা