kalerkantho

সোমবার । ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১১ রবিউস সানি ১৪৪১     

মদ্যপ যাত্রীর তুলকালাম

অপ্রীতিকর ঘটনা ঠেকাতে এবার বিমানে হাতকড়া

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আন্তর্জাতিক রুটের বিদেশি এয়ারলাইনসে মদ পরিবেশন স্বাভাবিক ঘটনা হলেও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসে তা নিষিদ্ধ। সেই নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে সম্প্রতি এক যাত্রী মদ্যপ হয়ে বিমানে তুলকালাম কাণ্ড ঘটালে তা থামাতে বেকায়দায় পড়তে হয় কেবিন ক্রুদের। এমন ঘটনার জের ধরে এবার উড়োজাহাজে হাতকড়ার মতো ‘সেফটি হ্যান্ডলক টাই’ ব্যবহার শুরু করছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস।

সূত্র জানায়, গত ৪ জানুয়ারি লন্ডন থেকে সিলেটে আসার পথে বিমানের বিজি-২০২ ফ্লাইটে অতিরিক্ত মদ্যপান করে ওঠেন এক যাত্রী। তিনি মাতাল হয়ে অসংলগ্ন আচরণ শুরু করেন। তাঁকে তল্লাশি করে মদের বোতল পাওয়া যায়। লন্ডন থেকে বিমান ছাড়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ওই যাত্রী মাতলামি শুরু করেন। কেবিন ক্রুদের সঙ্গে তাঁর আচরণ ছিল অশোভন। কেবিন ক্রু ও অন্য যাত্রীরা থামানোর চেষ্টা করলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। একপর্যায়ে ওই যাত্রী একজন ক্রুর আঙুলে কামড় দেন, প্লেট ছুড়ে মারেন। তাঁকে শান্ত করতে না পেরে পাইলটকে অবহিত করা হয়। পাইলটের নির্দেশে তাঁকে দড়ি দিয়ে বেঁধে ফেলেন ফ্লাইট অ্যাটেনড্যান্টরা। সিলেটে অবতরণের পর ওই যাত্রীকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে সোপর্দ করা হয়। এ ঘটনার একটি ভিডিও শেয়ার করেন একজন যাত্রী। ফেসবুকে এটি ভাইরাল হয়।

জাতীয় পতাকাবাহী এই রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থার ইন-ফ্লাইটে যাত্রীদের নিরাপত্তা ও ‘অপ্রীতিকর’ ঘটনা মোকাবেলায় ‘সেফটি হ্যান্ডলক টাই’ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

জানতে চাইলে বিমানের জনসংযোগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ কালের কণ্ঠকে বলেন, “আমাদের ফ্লাইটে যদি কোনো যাত্রী উচ্ছৃঙ্খল-সহিংস আচরণ করেন, এয়ারলাইনসের সেফটি রুলসে বলা আছে, এ ধরনের যাত্রী উড়োজাহাজের নিরাপত্তার জন্য হুমকি। সেই হুমকি মোকাবেলায় আমরা উড়োজাহাজের অভ্যন্তরে ‘সেফটি হ্যান্ডলক টাই’ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

লন্ডন থেকে সিলেটগামী যাত্রীবাহী বিজি-২০২ ফ্লাইটের যাত্রীর অপ্রীতিকর আচরণের পরই বিমান কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নেয় জানিয়ে শাকিল মেরাজ বলেন, ‘এটি আমাদের জন্য বিব্রতকর ঘটনা। সব ফ্লাইটে এমন ঘটে না। বছরে এমন দু-একটি ঘটনা ঘটলে যাতে আমরা মোকাবেলা করতে পারি সে জন্য এ ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

বিমান বাংলাদেশের মুখপাত্র জানান, যাত্রীর সহিংস আচরণ ঠেকাতে এত দিন দড়ি ব্যবহার করা হতো। বিশ্বের অনেক এয়ারলাইনস এখন সেফটি হ্যান্ডলক টাই ব্যবহার করে। বিমানও সব ফ্লাইটে বিশেষ ধরনের এই হাতকড়া রাখবে। শিগগিরই এটি কার্যকর হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা