kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

মুন্সীগঞ্জ-২ আসন

পরস্পরকে মালা দিয়ে সৌহার্দ্যে অ্যাটর্নি জেনারেল ও এমিলি

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি   

৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুন্সীগঞ্জ-২ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। কিন্তু আওয়ামী লীগ এ আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলিকেই চূড়ান্ত মনোনয়ন দিয়েছে। অ্যাটর্নি জেনারেল প্রার্থিতার প্রতিদ্বন্দ্বিতাকে পেছনে ফেলে বিষয়টি সহজভাবে নিয়ে এমিলিকে স্বাগত জানিয়েছেন। গতকাল শনিবার মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ীতে তাঁরা একে অপরকে মালা পরিয়ে সৌহার্দ্যের দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন।

টঙ্গিবাড়ী উপজেলার সোনারং-টঙ্গিবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন লিটন মাঝির বাড়িতে উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলির পক্ষে বর্ধিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে যোগ দেন  অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। তিনি তাঁর বক্তৃতায় বলেছেন, ‘আমাকে মনোনয়ন দেওয়া হয়নি, তাতে কী। ব্যক্তিগত নয় সমষ্টিগত স্বার্থই মূল কথা।’ মনোনীত প্রার্থী এমিলিকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘এত দিন আমার সঙ্গে যাঁরা ছিলেন, তাঁদের আপনি অনুরাগ কিংবা বিরাগের বশবর্তী হয়ে কোনো ব্যবস্থা নেবেন না অথবা পদচ্যুত করবেন না, কথা দিন।’ নিজের কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আপনারা দ্বিধাগ্রস্ত না হয়ে আমি

নমিনেশন পেলে যেভাবে কাজ করতেন, এমিলির পক্ষেও সেভাবে কাজ করুন। বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এলে আমাকে মেরে ফেলবে। কারণ আমি বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলা, যুদ্ধাপরাধ

মামলা, খালেদা জিয়ার ও মওদুদের বাড়িসহ অনেক মামলা পরিচালনা করেছি। তারা আমাকে ছেড়ে দেবে না। কাজেই আমার ওপর তাদের অনেক জেদ রয়েছে।’

সংসদ সদস্য এমিলি বলেন, ‘আমি হাত তুলে ওয়াদা করে বলছি, আমি সবাইকে সমান চোখে দেখব। আল্লাহকে সাক্ষী করে বলছি, আমি কাউকে পদচ্যুত করব না। আপনি যা বললেন, আমি তা অক্ষরে অক্ষরে পালন করব।’ এমিলি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরেই অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের জীবন ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।

টঙ্গিবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি জগলুল হালদার ভুতুর সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্য বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি গোলাম কবির লাবু শিকদার, সাধারণ সম্পাদক শেখ লুৎফর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সোহানা তাহমিনা, বাংলাদেশ কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, বাংলাদেশ শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কোষাধ্যক্ষ শামসুল আলম মিল্কী, টঙ্গিবাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার কাজী ওয়াহিদ প্রমুখ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা