kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ব্যস্ত সময়ের ব্যায়াম

৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্যস্ত সময়ের ব্যায়াম

বিছানা ছাড়ার আগে

মাত্র পাঁচ মিনিটের শরীরচর্চা। ঘুম থেকে জেগে বিছানা ছাড়ার আগেই ইয়োগার আসন আপনাকে চনমনে করে দিতে পারে। স্পাইনাল টুইস্ট, চাইল্ডস পোজসহ আরো কয়েকটি আসন আপনাকে একটা সুন্দর সকাল উপহার দিতে পারে। দেহের জড়তা ভাব চলে যাবে। পেশি সচল হয়ে ওঠে এবং কিছুটা ক্যালরিও পোড়ে। শ্বাস-প্রশ্বাসের কৌশলও অবলম্বন করতে পারেন।

 

সকালে টিভি দেখার সময়

এ কাজে সময় দিতে হবে মাত্র ১৬ মিনিট। ধরুন, এ সময়টা ব্যায়ামের জন্য নয়, টেলিভিশনে কোনো পছন্দের অনুষ্ঠান দেখবেন। আর তা দেখতে দেখতে কাজটি সেরে ফেলতে হবে। দড়ি লাফাতে হবে। খুবই কার্যকর এক কার্ডিও ব্যায়াম। এটি সবাই জানে কিভাবে করতে হবে। দরকার শুধু চর্চা। কয়েক দিন করলেই সহজ হয়ে আসবে। দম বাড়বে এবং পরিশ্রমী হয়ে উঠবেন।

 

চুলায় যখন খাবার

সকালের নাশতা বানানো কিংবা গরম দেওয়ার সময় মাত্র দুই মিনিটে একটি ব্যায়াম সেরে ফেলতে পারেন। চুলায় বা মাইক্রোওয়েভ ওভেনে খাবার গরম হতে দু-তিন মিনিট সময় তো দেওয়াই যায়। আর সেখানেই দাঁড়িয়ে ডন বৈঠক দিয়ে দিন। দুই পায়ের হাঁটু মুড়ে চেয়ারে বসার মতো শূন্যে বসে পড়ুন। আবার উঠুন। কাজটি খাবার গরম হওয়া পর্যন্ত করে যান।

 

দাঁত মাজার সময়

এটাও মিনিট দুয়েকের ব্যায়াম। খুবই উপকারী। একে বলা হয় অল্টারনেট লাঞ্জ। এটা মূলত পায়ের ব্যায়াম হলেও আপনি হাত ব্যবহার করতে পারেন। ধরুন, ডান হাতে দাঁত ব্রাশ করছেন। বাঁ হাতটি বাথরুমের দেয়ালে মেঝের সঙ্গে সমান্তরালে রাখুন। এবার দেয়ালে হাতের ভর দিয়ে দেয়ালের দিকেই কিছুটা হেলে পড়ুন। আবার হাতের ভরে সোজা হয়ে দাঁড়ান। এটা হাতের দারুণ ব্যায়াম। দুই মিনিট ধরে তো দাঁত মাজতেই হয়। এক মিনিট ডান হাতে এবং পরের এক মিনিট বাঁ হাতে ব্যায়ামটি করতে পারেন। এতে হাতের পেশি শক্তিশালী হবে।

 

হাঁটা

এ কাজটি করতে পারেন অফিসে যাওয়া সময় কিংবা ফেরার কালে। বাড়ি থেকে বেরিয়ে যতটা পারা যায় হেঁটে সামনে গিয়ে তারপর পরিবহনে উঠুন। আবার তেমনিভাবে অফিসের একটু আগেই নেমে যান এবং হাঁটুন। কাজে যাওয়ার সময় মিনিট পনেরো হাঁটার কাজে ব্যয় করলে আপনি সুস্থ-সবল থাকবেন।

চিটশিট অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা