kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ১৭ অক্টোবর ২০১৯। ১ কাতির্ক ১৪২৬। ১৭ সফর ১৪৪১       

নির্বাচনী সংঘাতে বেড়া ফরিদপুরে আহত ১৪

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নির্বাচনী সংঘাতে পাবনার বেড়ায় বিএনপির হামলায় আওয়ামী লীগের ১২ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। ফরিদপুরে আলাদা ঘটনায় বিএনপির দুই নেতাকে ডেকে নিয়ে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা। আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর—

পাবনা (আঞ্চলিক) : পাবনার বেড়ায় বিএনপির হামলায় আওয়ামী লীগের ১২ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ আটজনকে আটক করেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গতকাল শনিবার দুপুরে আওয়ামী লীগের এক দল নেতাকর্মী বেড়ার মাসুমদিয়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সভা ও গণসংযোগ শেষে মোটরসাইকেলযোগে মাসুমদিয়া বাজারের দিকে যাচ্ছিল। এ সময় মাসুমদিয়া বাজারে বিএনপির প্রার্থী সেলিম রেজা হাবিবের পক্ষে নির্বাচনী সভা চলছিল। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা বাজারে পৌঁছলে বিএনপির সমর্থকরা তাদের ওপর অতর্কিত ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এতে আওয়ামী লীগের মাসুমদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিরোজ হোসেন, যুবলীগ আহ্বায়ক মানিক মণ্ডল, যুগ্ম আহ্বায়ক আলম মোল্লা, পাবনা জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সাদ্দাম হোসেন, মাসুমদিয়া কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আলামিন, যুবলীগ নেতা রেজাউল, ইমাম কাজী, সোহেল, আদল মণ্ডল, নজরুল ইসলামসহ ১২ নেতাকর্মী আহত হয়।

ফরিদপুর : ফরিদপুর সদর উপজেলার ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নে ধানের শীষের নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেওয়ার অভিযোগে বিএনপি নেতা লুৎফর খাঁকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিএনপি নেতা লুৎফরকে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। লুৎফর খাঁ ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের দুর্গাপুর খেয়াঘাট এলাকার মৃত মকবুল শেখের ছেলে। তিনি ওই ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক।

এদিকে গত শুক্রবার প্রায় একই সময়ে একই ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক মদনদিয়া গ্রামের ইউনুস শেখের ছেলে হাবুল শেখকে ডেকে একটি বাগানে নিয়ে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা