kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

মানিকগঞ্জে ধানের শীষের সব প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল

বিশেষ প্রতিনিধি   

৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মানিকগঞ্জ জেলায় বিএনপির সব প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিলের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছে  প্রতিকার চেয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দলীয় মনোনয়নপত্রে তাঁর স্বাক্ষর নিয়ে প্রশ্ন তুলে বাতিল করা হয় ওই সব মনোনয়নপত্র। এ ব্যাপারে ফখরুল ইসলাম আলমগীরের স্বাক্ষরিত চিঠি নিয়ে গতকাল রবিবার দুপুরে নির্বাচন কমিশনে জমা দেন দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা বিজন কান্তি সরকার।

বিজন কান্তি বলেন, ‘মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক। এ জন্য আমাদের সব প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। আমরা যোগাযোগ করেছি। মির্জা ফখরুলও কমিশনে যোগাযোগ করে বলেছেন—এটা তাঁর স্বাক্ষর। এ জন্য যেন প্রার্থীদের হয়রানি করা না হয়।’

বিজন কান্তি আরো বলেন, ‘আমরা সচিবের সঙ্গে কথা বলেছি, তিনি আমাদের জানিয়েছেন যেহেতু কথা বলার আগেই ডিসি সাহেব মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন, এখন তাঁর পক্ষে এটি গ্রহণ করার সুযোগ নেই।’

বিজন কান্তি বলেন, ‘ মহাসচিব সাত শর বেশি চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন। সেখানে একটু এদিক-সেদিক হতে পারে। এরপর কনফার্ম করার পরও মনোনয়নপত্র বাতিল করা হলো। তাঁরা এখন আপিল করবেন। কিন্তু এভাবে সারবত্তাহীন কারণে কারো মনোনয়নপত্র বাতিল করবে, তা মেনে নেওয়া যায় না। নির্বাচন আইনেও বলা হয়েছে, এসব সারবত্তাহীন কোনো অভিযোগের কারণে বা কোনো কনফিউশনের কারণে কাউকে যেন নির্বাচনের প্রার্থিতা থেকে বঞ্চিত করা না হয়। মানিকগঞ্জের ডিসি কেন এমন আচরণ করলেন, এটাই আমাদের প্রশ্ন। আমরা আশা করছি আপিলের মাধ্যমে তাঁদের মনোনয়নপত্র গৃহীত হবে।’

মির্জা ফখরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, ‘মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসক দলীয় মনোনয়নপত্রে আমার প্রদত্ত স্বাক্ষর গ্রহণ করছেন না। যা অনাকাঙ্ক্ষিত। আমি দৃঢ়তার সঙ্গে জানাচ্ছি যে মানিকগঞ্জ জেলার প্রতিটি আসনে যাঁদের দলীয় মনোনয়নপত্র দেওয়া হয়েছে তাঁরা সুপরিচিত এবং আমি নিজে তাঁদের মনোনয়নপত্রে স্বাক্ষর করেছি। এ বিষয়ে সন্দেহের বিন্দুমাত্র অবকাশ নেই। আমার স্বাক্ষর গ্রহণ করার জন্য মানিকগঞ্জসহ সব জেলা প্রশাসককে ত্বরিত নির্দেশনা প্রদানের জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা