kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৫ রবিউস সানি          

শান্তিচুক্তির ২১ বছর পূর্তি

পার্বত্য চট্টগ্রাম এখনো অনেক সূচকে পিছিয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি    

৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সম্ভাবনাময় পার্বত্য চট্টগ্রাম এখনো অনেক সূচকে পিছিয়ে রয়েছে। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এসে শুরুতেই পার্বত্য অঞ্চলে শান্তি ফেরানোর কাজ করে। চুক্তির প্রায় সব বিষয় এরই মধ্যে বাস্তবায়িত হয়েছে। ভূমি বন্দোবস্তের যে সমস্যা রয়েছে সেটিও এই সরকারের ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে সমাধান হয়ে যাবে। গতকাল রবিবার পার্বত্য শান্তিচুক্তির ২১ বছর পূর্তিতে আয়োজিত অনুষ্ঠানে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশেসিং এমপি এসব কথা বলেন।

রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়। ওই মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নূরুল আমিন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন সাবেক সচিব কাজী গোলাম রহমান, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড চেয়ারম্যান বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা প্রমুখ।

এ সময় বীর বাহাদুর বলেন, পার্বত্য অঞ্চলে উন্নয়নের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলো পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়কে জানানোর কথা থাকলেও তা করা হয় না। তাই এই অঞ্চলের অধিকতর উন্নয়নের জন্য যেকোনো কাজ নিজস্ব মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা জরুরি।

বীর বাহাদুর আরো বলেন, ‘রাস্তা, বিদ্যুৎ, স্কুল, কলেজ, হাসপাতাল এই এলাকার মানুষ কখনো দেখেনি। চুক্তির মাধ্যমে এখন ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ। প্রতিটি উপজেলায় কলেজ, হাসপাতাল হয়ে গেছে। নতুন প্রজন্মের কাছে শান্তিচুক্তির শান্তি পৌঁছে দেওয়া আমাদের সবার দায়িত্ব। নিজেদের মধ্যে বিভক্তি থাকলে সামনে আগানো যাবে না।’

অন্যদিকে এ দিবস উপলক্ষে রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনের থ্রিডি সেমিনার হলে ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির ২১ বছর : বাস্তবায়ন ও নির্বাচনী প্রত্যাশা’ শীর্ষক আলোচনাসভায় পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশনের কো-চেয়ার অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল বলেন, পার্বত্য অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠায় চুক্তি হলেও তা বাস্তবায়নে সরকারের সদিচ্ছা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। যে কারণে ওই অঞ্চলের মানুষের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সভাপতি জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা (সন্তু লারমা) বলেন, এর আগে রাজনৈতিক দলগুলোর নির্বাচনী ইশতেহারে পার্বত্য চট্টগ্রামের সমস্যা নিয়ে অনেক কথা বলা হলেও তার বাস্তবায়ন হয়নি। নির্বাচনী ইশতেহার বাস্তবায়নে ক্ষমতাসীন দলগুলোর আন্তরিকতার প্রতিফলন দেখা যায়নি।

প্রবীণ রাজনীতিবিদ পংকজ ভট্টাচার্য্য বলেন, চুক্তির পর গত ২১ বছর অনেক হত্যাকাণ্ড ও সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা হয়েছে। এ নিয়ে পাহাড়িদের মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে। ফলে যেকোনো মুহূর্তে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা