kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

যাত্রাবাড়ীতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে শিশু নিহত

দগ্ধ ছয়জন বার্ন ইউনিটে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর ধলপুরে একটি টিনশেড বাড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে তাহসিন (৭) নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে এ ঘটনায় দগ্ধ হয়েছে ছয়জন। তাদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

বার্ন ইউনিটে ভর্তি ছয়জন হলো খুলনার দিঘলিয়ার দাখিল মাদরাসার সপ্তম শ্রেণির ছাত্র মো. নিশান, তার মা সাজুলি বেগম, বাবা শামীম সরকার ওরফে সুমন, সুমনের ফুফু আতর বেগম এবং তাদের প্রতিবেশী আলমগীর হোসেন ও তার স্ত্রী কাজলী বেগম। নিশান ছাড়া বাকিরা সিটি করপোরেশনের কর্মী।

গতকাল দুপুরে ঢামেক বার্ন ইউনিটের অবজারভেশন ওয়ার্ডে গিয়ে দেখা যায়, পাশাপাশি বিছানাগুলোয় শুয়ে থাকা দগ্ধ ছয়জনের প্রত্যেকের শরীর ব্যান্ডেজে মোড়ানো। ব্যথায় চিৎকার করছিল তারা। তাদের একজন আলমগীর জানান, ধলপুর র‌্যাব-১০ কার্যালয়ের পাশে ১৪ নম্বর আউটফল সিটি করপোরেশন কোয়ার্টারে থাকেন তাঁরা। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বাসার নিচতলার একটি কক্ষে গ্যাসের সিলিন্ডার বিকট শব্দে বিস্ফোরিত হয়। এরপর পুরো বাসায় গ্যাস ছড়িয়ে আগুন ধরে যায়। তখনই সবাই দগ্ধ হয়। শিশু তাহসিন তার সামনেই পুড়ে মারা যায়।

আলমগীর জানান, ঘটনার সময় তিনি নিচতলা থেকে সিঁড়ি বেয়ে ওপরে উঠছিলেন এবং তাহসিন নিচে নেমে আসে। এ সময় নিচতলার একটি কক্ষে বিকট শব্দে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয় এবং সারা বাসায় আগুন ধরে যায়। আগুন লাগে আলমগীরের শরীরেও। ওই সময় চিৎকার করতে থাকা তাহসিনকেও পুড়তে দেখেন তিনি।

যাত্রাবাড়ী থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী জানান, দোতলা বাড়ির নিচতলার একটি বাসায় সিলিন্ডার থেকে আগুনের সূত্রপাত। আগে থেকেই কোনোভাবে ঘরে গ্যাস জমে গিয়েছিল। সকালে কেউ চুলা ধরাতে গেলে পুরো ঘরে আগুন ধরে যায় এবং বিস্ফোরণে ঘরের এক পাশের দেয়াল ধসে পড়ে। সে সময় আগুন ও দেয়াল ধসের কারণে সাত বছরের শিশু তাহসিনের মৃত্যু হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা