kalerkantho

শনিবার । ২৫ জানুয়ারি ২০২০। ১১ মাঘ ১৪২৬। ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

ছুটির দিনে আয়কর মেলা

চাকরিজীবীদের ভিড়

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাকরিজীবীদের ভিড়

গতকাল শুক্রবার সরকারি ছুটির দিনে রাজধানীর বেইলি রোডের অফিসার্স ক্লাবে আয়কর মেলায় ভিড়। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজধানীর অফিসার্স ক্লাব প্রাঙ্গণে যেন উৎসবের আমেজ। চারদিকে বড় বড় ব্যানার ও প্ল্যাকার্ডে রাজস্ববিষয়ক বিভিন্ন স্লোগান লিখে টানানো রয়েছে। যে যার কাজে ব্যস্ত। কেউ ই-টিআইএন নিচ্ছে। অনেকে কর পরিশোধের জন্য ব্যাংকের বুথের সামনে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে। অনেকে রাজস্ববিষয়ক প্রয়োজনীয় তথ্য জানছে মেলায় উপস্থিত রাজস্ব কর্মকর্তাদের কাছ থেকে। অনেকে স্বেচ্ছাসেবকদের সহযোগিতায় রিটার্নের ফরম জমা দিতে যাচ্ছে নির্ধারিত বুথের সামনে।

গতকাল রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) আয়োজিত আয়কর মেলায় সাপ্তাহিক ছুটির দিন এমন দৃশ্য দেখা যায়। ১৩ নভেম্বর শুরু হওয়া মেলা চলবে ১৯ নভেম্বর পর্যন্ত। এর মধ্যে দুই দিন সাপ্তাহিক ছুটি পড়েছে। গতকাল ছিল এর প্রথম দিন। এদিন আগের তিন দিনের চেয়ে ভিড় ছিল কয়েক গুণ বেশি। করদাতার মধ্যে চাকরিজীবীরা সংখ্যায় ছিল বেশি।

এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আয়কর মেলা এ দেশের রাজস্ব সংস্কৃতিতে ইতিবাচক পরিবর্তন এনেছে। সাপ্তাহিক ছুটির দিনে মেলায় আগতদের সংখ্যা বাড়বে বলে ধারণা ছিল। তাই এনবিআর থেকে এ বিষয়ে যথেষ্ট প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। আশা করছি চাহিদামতো সেবা দিতে পারব।’

মেলা শুরুর নির্ধারিত সময় ছিল সকাল ১০টা। তবে দেড় থেকে দুই ঘণ্টা আগেই রিটার্ন দাখিলে নির্দিষ্ট বুথের সামনে ছিল দীর্ঘ লাইন। ঢাকার সেগুনবাগিচার বাসিন্দা মো. আকরাম আলী একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমাদের অফিসে সপ্তাহে এক দিন স্বাভাবিক ছুটি দিয়ে থাকে। আমরা তিন বন্ধু মিলে আগেই ঠিক করে রেখেছিলাম, আজকে মেলায় এসে রিটার্ন জমা দিলাম।’ আরেক করদাতা হাফিজুর রহমান বলেন, ‘আমার ই-টিআইএন নেই। এতে অনেক সমস্যা হয়। অনেক কাজেই এখন ই-টিআইএন জমা দিতে হয়। পত্রপত্রিকা পড়ে ও টেলিভিশন দেখে জানতে পেরেছি, মেলায় ই-টিআইএন করা, কর পরিশোধ, রিটার্ন জমা একই জায়গায় করা যায়। আজকে (গতকাল শুক্রবার) আমার কারখানা বন্ধ। তাই মেলায় এসে সব কাজ করলাম। এনবিআরের এক অফিসার সহযোগিতা করেছেন।’

গতকাল সাপ্তাহিক ছুটি থাকলেও আয়কর মেলার দায়িত্বে থাকা রাজস্ব কর্মকর্তারা মেলা শুরুর নির্ধারিত সময়ের আগেই নির্দিষ্ট বুথে হাজির হয়েছেন। এক ঘণ্টা নামাজের বিরতি ছাড়া টানা সেবা দেন তাঁরা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা