kalerkantho

রবিবার । ১ কার্তিক ১৪২৮। ১৭ অক্টোবর ২০২১। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ট্যানারির বর্জ্যে ধলেশ্বরী দূষণ

বর্জ্য ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পাচ্ছে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান

নিখিল ভদ্র   

১১ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পরিবেশবান্ধব করার ঘোষণা দিয়ে প্রতিষ্ঠিত হলেও সাভার চামড়া শিল্পপল্লীর বর্জ্যে মারাত্মকভাবে দূষিত হচ্ছে ধলেশ্বরী নদী। এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে ওই শিল্প বর্জ্য ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে বলে শিল্প মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

শিল্প মন্ত্রণালয় থেকে পরিবেশ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো এক প্রতিবেদনে এ তথ্য পাওয়া গেছে। গত অক্টোবরে শিল্প মন্ত্রণালয় এই প্রতিবেদন পাঠায়।

এর আগে গত আগস্টে সংসদীয় কমিটির বৈঠকে চামড়া শিল্পপল্লীর বর্জ্যে নদী দূষণের বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। কমিটির বৈঠকে উত্থাপিত কার্যপত্রে বলা হয়, সাভার বিসিক চামড়া শিল্পনগরীতে এখন ১১৫টি ট্যানারি উৎপাদনে আছে। ট্যানারির তরল বর্জ্য পরিশোধনের জন্য বিসিকের নির্মিত ২৫ হাজার ঘনমিটার ক্ষমতাসম্পন্ন সিইটিপিতে ফ্লুয়েন্ট পাওয়ার সিস্টেমের মাধ্যমে তরল বর্জ্য স্থানান্তর করা হয়। কিন্তু পরিশোধিত ও অপরিশোধিত তরল বর্জ্য এবং ধলেশ্বরী নদীর ১০০ মিটার উজান ও ২০০ মিটার ভাটি থেকে প্রতি মাসে পরিবেশ অধিদপ্তর নমুনা নিয়ে পরীক্ষা করেছে। পরীক্ষার ফলাফলে দেখা যায়, বিভিন্ন ক্ষতিকর তরল বর্জ্য (সিওডি, বিওডি এবং টোটাল ক্রমিয়াম, টিডিএস, ক্লোরাইড) বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই পরিবেশ সংরক্ষণ বিধিমালার মানমাত্রার বাইরে। এ বিষয়ে আলোচনা শেষে কমিটির পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়।

প্রতিবেদনে শিল্প মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সংসদীয় কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিবের নেতৃত্বে একটি দল সাভারে চামড়া শিল্প পল্লী পরিদর্শন করে। পরিদর্শনকালে সেখানে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার সংকট দেখা গেছে। সেখানে পরিবেশসম্মত বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আলোচনা চলছে বলে শিল্প মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

পরিবেশ মন্ত্রণালয়সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. হাছান মাহমুদ কালের কণ্ঠকে বলেন, ট্যানারি শিল্প সাভারে স্থানান্তরিত হওয়ায় পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাবসহ ধলেশ্বরী নদী দূষণের শিকার হচ্ছে। কেন্দ্রীয় বর্জ্য পরিশোধনাগার (সিইটিপি) বসানো হলেও তা যথাযথভাবে কাজ করছে না, যা পরিবেশের জন্য হুমকি। বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা শেষে পরিবেশ সুরক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেছে সংসদীয় কমিটি।

 

 



সাতদিনের সেরা