kalerkantho

সোমবার । ১৮ নভেম্বর ২০১৯। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সরকারি কলেজের বেসরকারি কর্মচারীদের পাঁচ দফা দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সরকারি কলেজের বেসরকারি কর্মচারীরা নিয়োগের তারিখ থেকে চাকরি সরকারীকরণসহ পাঁচ দফা দাবি জানিয়েছে। গতকাল রবিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ সরকারি কলেজ বেসরকারি কর্মচারী ঐক্যপরিষদ এ দাবি জানায়। সংবাদ সম্মেলন শেষে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেন সংগঠনের নেতারা।

কর্মচারীদের দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে নিয়োগের তারিখ থেকে চাকরি সরকারি হওয়ার আগ পর্যন্ত সরকারি স্কেলে বেতন-ভাতা প্রদান, চাকরি সরকারি না হওয়া পর্যন্ত নতুন নিয়োগ বন্ধ, নতুন পদ সৃষ্টি করে সরকারি কলেজের বেসরকারি কর্মচারীদের নিয়োগ দেওয়া এবং পদোন্নতি দিয়ে শূন্য পদ পূরণ বন্ধ রাখতে হবে।

লিখিত বক্তব্যে সংগঠনের সভাপতি মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, সারা দেশে সরকারি কলেজের বেসরকারি কর্মচারীদের চাকরি সরকারীকরণের দাবিতে ৩০টির বেশি মামলা রয়েছে। সরকারীকৃত কলেজগুলোয় শিক্ষকদের পদ সৃষ্টি করা হলেও কর্মচারীদের পদ সৃষ্টি করা হচ্ছে না। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোয় রাজস্ব খাতে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির যে জনবল রয়েছে তা দিয়ে প্রতিষ্ঠান পরিচালনা সম্ভব নয়। এ জন্য কলেজগুলোয় ৮০ থেকে ৮৫ শতাংশ জনবল বেসরকারিভাবে কাজ করছে। তিনি বলেন, একজন সরকারি কর্মচারী ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা বেতন-ভাতা পেলেও একজন বেসরকারি কর্মচারী পান  মাত্র চার হাজার টাকা। বিভিন্ন কলেজে ১৫ থেকে ২৫ বছর ধরে কর্মরত থাকার পরেও অভিজ্ঞতাসম্পন্নদের বাদ দিয়ে নতুন নিয়োগপ্রক্রিয়া চালানো হচ্ছে, যা খুবই দুঃখজনক।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পরিষদের সহসভাপতি মো. মনির হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, সুমন উদ্দিন, আলমগীর হোসেন, আরজু মিয়া প্রমুখ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা