kalerkantho

সোমবার । ১৮ নভেম্বর ২০১৯। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

যুব সম্মেলনে বক্তারা

নির্বাচনী ইশতেহারে যুবসমাজের মত নিতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নির্বাচনী ইশতেহারে যুবসমাজের মত নিতে হবে

রাজনৈতিক দলগুলোকে উদ্দেশ করে দেশের বিশিষ্টজনরা বলেছেন, নির্বাচনী ইশতেহার তৈরির আগে যুবসমাজের সঙ্গে আলোচনায় বসতে হবে। যুবসমাজের মতামত নিয়ে ইশতেহার তৈরি করতে হবে। টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে তাদের মতামত নিতে হবে। যুবসমাজকে বাদ দিয়ে নির্বাচনী ইশতেহার তৈরি করা যাবে না। তাদের ভোটাধিকার নিশ্চিত করার জোরালো দাবি তুলেছেন তাঁরা।

গতকাল রবিবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতিসংঘ ঘোষিত ১৫ বছর মেয়াদি টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বা এসডিজি বাস্তবায়নে ‘নাগরিক প্ল্যাটফর্ম, বাংলাদেশ’ আয়োজিত এক যুব সম্মেলনে বিশিষ্ট ব্যক্তিরা এই আহ্বান জানান। সম্মেলনে সারা দেশ থেকে কয়েক শ তরুণ-তরুণী অংশ নেন।

‘বাংলাদেশ ও এজেন্ডা ২০৩০ : তারুণ্যের প্রত্যাশা’ শীর্ষক দিনব্যাপী যুব সম্মেলনে সকালের অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী বলেন, ‘আমাদের সামনে অনেক চ্যালেঞ্জ রয়েছে, তাতে কোনো সন্দেহ নেই। এসডিজি অর্জনে আমাদের যুবসমাজ কাজ করছে। তাদের আরো বেশি সম্পৃক্ত করতে পারলে এসডিজি অর্জনে আমরা সফল হব।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।’

সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদার বলেন, ‘আমরা ১১ লাখ যুবককে প্রশিক্ষণ দিয়েছি। এর মধ্যে ছয় লাখ যুবক-যুবতী নিজেই নিজের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করেছে। তাদের অনেকে চাকরি না করে এখন অন্যদের চাকরি দিচ্ছে।’

সভাপতির বক্তব্যে সিপিডির সম্মাননীয় ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষ যত বেশি শিক্ষিত হয়, বেকার হওয়ার ঝুঁকি তত বেশি হয়। দেশের মোট যুবকদের এক-তৃতীয়াংশ বেকার। বেকারত্ব কমিয়ে আনতে সরকারকে অবশ্যই উদ্যোগ নিতে হবে। যুবসমাজের মতো এত বড় একটি মূল্যবান সম্পদ আমরা কাজে লাগাতে পারছি না, এটি আমাদের একটি বৃহৎ জাতীয় অপচয়।’ তিনি রাজনৈতিক দলগুলোকে নির্বাচনী ইশতেহার তৈরির আগে যুবসমাজের সঙ্গে বসা এবং তাদের ভোটাধিকারও নিশ্চিত করার আহ্বান জানান।

সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল বলেন, ‘আমাদের খেয়াল রাখতে হবে, দেশের দায়িত্ব যেন দুর্বৃত্তদের হাতে চলে না যায়।’

গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব হানিফ সংকেত বলেন, ‘যখন বন্যা আসে, বন্যার সাথে অনেক ময়লাও আসে; কিন্তু বন্যা-পরবর্তী ময়লা চলে যায় আর থেকে যায় পলিমাটি, আমাদের যুবসমাজ হলো সেই পলিমাটি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা