kalerkantho

বুধবার । ২১ আগস্ট ২০১৯। ৬ ভাদ্র ১৪২৬। ১৯ জিলহজ ১৪৪০

রেমিট্যান্স নিয়ে খবর নাকচ করলেন শ্রিংলা

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘ভারতে রেমিট্যান্সের চতুর্থ শীর্ষ উৎস বাংলাদেশ’—এমন খবরকে ভিত্তিহীন বলে নাকচ করে দিয়েছেন ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা। গত বুধবার ঢাকায় ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় এক প্রদর্শনীর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই সভাপতিকে অনুরোধ করেছেন, তিনি কোথায় এ ধরনের ‘ভুল তথ্য’ পেয়েছেন তা যেন ভারতীয় হাইকমিশনকে জানান।

ওই অনুষ্ঠানেই ভারতীয় হাইকমিশনারের বক্তব্যের আগে এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বাংলাদেশ-ভারত বাণিজ্য সম্পর্কের গতিশীলতার বিষয়টি তুলে ধরতে গিয়ে বলেছিলেন, ‘ভারতে রেমিট্যান্স সরবরাহকারী দেশের মধ্যে বাংলাদেশ চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে এবং তা আমাদের গর্ব করার মতো।’ এরপর ভারতের হাইকমিশনার তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে ভারতে রেমিট্যান্স নিয়ে জনাব মহিউদ্দিন যে তথ্য দিয়েছেন তা সম্পূর্ণ ভুল। আমি জানি না, তিনি কোত্থেকে এই তথ্য পেলেন। যদি এই রকম কোনো তথ্য থাকে, তাহলে আমি বলব তা আমাদের জানাতে।’

বিডিনিউজ জানায়, রেমিট্যান্স আহরণকারী দেশ হিসেবে ভারতের অবস্থান বিশ্বে শীর্ষে। গত বছর প্রবাসী ভারতীয়রা ছয় হাজার ৯০০ কোটি ডলার ভারতে পাঠিয়েছিল।

অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও বিভিন্ন খাতে বহু ভারতীয় কাজ করে নিজ দেশে রেমিট্যান্স বাড়াতে ভূমিকা রাখে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ বিষয়ে নানা তথ্য ছড়িয়ে পড়ার মধ্যে এফবিসিসিআই সভাপতি গত বুধবার  রেমিট্যান্স-সংক্রান্ত ওই তথ্য দেন।

‘ফিউচারস্টার্টআপ’ নামের একটি ওয়েবসাইট সম্প্রতি দাবি করেছে, বাংলাদেশ থেকে ৪০৮ কোটি ডলার  রেমিট্যান্স যায় ভারতে। ভারতে রেমিট্যান্সের উৎস দেশের মধ্যে বাংলাদেশ পঞ্চম।

এই তথ্যের ভিত্তি হিসেবে পিউ রিসার্চ সেন্টারের একটি ইনফোগ্রাফকে দেখিয়েছিল ‘ফিউচারস্টার্টআপ’। ওই ইনফোগ্রাফে আবার ব্যবহৃত হয়েছিল বিশ্বব্যাংকের পরিসংখ্যান। কিন্তু পিউ রিসার্চ সেন্টারের ওয়েবসাইটে এ ধরনের কোনো তথ্য মিলছে না। তাদের ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, ভারতের  রেমিট্যান্সের উৎস দেশের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। এর পরে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, সৌদি আরব, কুয়েত, কাতার, যুক্তরাজ্য, ওমান, নেপাল, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়া।

অন্যদিকে তাদের ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, ভারত থেকে যেসব দেশে রেমিট্যান্স যায়, তার মধ্যে শীর্ষে বাংলাদেশ। ভারতে থাকা বাংলাদেশিরা ২০১৭ সালে ৪০০ কোটি ডলার দেশে পাঠিয়েছে। এই তালিকায় বাংলাদেশের পরে রয়েছে নেপাল ও শ্রীলঙ্কা।

 

 

 

মন্তব্য