kalerkantho


হাজার মণ বিষযুক্ত আম ধ্বংস

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ মে, ২০১৮ ০০:০০



হাজার মণ বিষযুক্ত আম ধ্বংস

রাজধানীর মিরপুর ১-এর আড়তে গতকাল অভিযান চালিয়ে কার্বাইড দিয়ে পাকানো বিপুল পরিমাণ আম ধ্বংস করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। ছবি : কালের কণ্ঠ

সিটি করপোরেশন নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে মাংসের দাম বেশি রাখায় রাজধানীতে আগোরা সুপারশপসহ বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ীকে মোট ৯৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল শনিবার এ অভিযান পরিচালনা করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

অভিযান পরিচালনাকারী কর্মকর্তারা জানান, আগোরার মোহাম্মদপুরের আউটলেটে কেজিপ্রতি ৬০ থেকে ১০০ টাকা বেশি দামে খাসির মাংস বিক্রি করা হচ্ছিল। এ কারণে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯-এর ৪০ ধারা অনুযায়ী আগোরা সুপারশপকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পাশাপাশি তাদের সব শাখায় নির্ধারিত দামে মাংস বিক্রি করতে বলা হয়েছে। এর ব্যত্যয় হলে বড় অঙ্কের জরিমানা করা হবে।

এদিন আগোরা ছাড়াও মোহাম্মদপুর এলাকার জালালাবাদ বয়লার হাউস, খুরশীদের মাংস বিতান, আজিমের মাংস বিতান, জনপ্রিয় খাসির মাংস, বিসমিল্লাহ খাসির মাংস, জহির মাংস বিতান, জহির অ্যান্ড জাহিদ এবং পশ্চিম শেওড়াপাড়া এলাকার সাত্তার, হানিফ ও হাবিবের তিন মাংস দোকানকে বিভিন্ন পরিমাণে জরিমানা করা হয়। এই ১০টি প্রতিষ্ঠানকে মোট ৬৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযানের নেতৃত্ব দেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক (উপসচিব) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার। এ সময় সঙ্গে ছিলেন অধিদপ্তরের ঢাকা জেলা অফিসের সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মণ্ডল ও ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক রজবী নাহার রজবী। তাঁদের সহায়তা করেন আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)-১ ও ১১-এর সদস্যরা।

উপপরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, সিটি করপোরেশন রমজান মাস উপলক্ষে মাংসের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে। যারা এটা মানছে না তাদের জরিমানা করার পাশাপাশি সতর্ক করে দেওয়া হচ্ছে। একই অপরাধ দ্বিতীয়বার করলে সিলগালাসহ কঠোর শাস্তি দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্ধারিত মূল্য অনুযায়ী, দেশি গরুর প্রতি কেজি মাংস ৪৫০ টাকা এবং বিদেশি গরুর প্রতি কেজি মাংসের দাম ৪২০ টাকা। এ ছাড়া খাসির মাংস প্রতি কেজি ৭২০, মহিষের ৪২০  এবং ভেড়া ও ছাগীর মাংস ৬০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

১১০০ মণ আম ধ্বংস : এদিকে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে গতকাল রাজধানীর মিরপুর ১ নম্বরের দিয়াবাড়ী এলাকার ফলের আড়তে রাসায়নিকযুক্ত এক হাজার ১০০ মণ আম ধ্বংস করা হয়েছে। পাশাপাশি ফয়সাল আহমেদ (২৫), রমজান আলী (২৯), আবদুস সোবহান (৪২), মোহাম্মদ তাবারুল (২৬), মো. নুরুল (৭৩) ও মনিরুল ইসলাম (৫৫) নামের ছয় ব্যবসায়ীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। ভেজালবিরোধী এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম।

ভেজালমুক্ত খাবারের দাবিতে মানববন্ধন : এদিকে ভেজালমুক্ত খাবারের দাবিতে গতকাল সকালে চকবাজার জামে মসজিদের সামনে মানববন্ধন করা হয়েছে। এতে পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের (পবা) চেয়ারম্যান আবু নাসের খানের সভাপতিত্ব বক্তৃতা করেন নাসফের সাধারণ সম্পাদক মো. তৈয়ব আলী, পবার সম্পাদক এম এ ওয়াহেদ, পুরান ঢাকা নাগরিক উদ্যোগের সভাপতি নাজিম উদ্দিন, সুবন্ধন সমাজকল্যাণ সংগঠনের সভাপতি হাবিবুর রহমান ও পরিবেশ আন্দোলন মঞ্চের সভাপতি আমির হাসান মাসুদ।

মানববন্ধনে বিষাক্ত খাদ্যের ভয়াবহতা বিবেচনায় ফরমালিন নিয়ন্ত্রণ আইন, নিরাপদ খাদ্য আইন এবং ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন যথাযথভাবে প্রয়োগ করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

 



মন্তব্য