kalerkantho

বুধবার । ২২ মে ২০১৯। ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৬ রমজান ১৪৪০

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বললেন

এ বছর মালয়েশিয়া যাবে ৫-৭ লাখ কর্মী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৫ জানুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এই বছরের মধ্যেই প্রায় পাঁচ থেকে সাত লাখ কর্মী মালয়েশিয়া যাবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। তিনি বলেছেন, ‘জনশক্তি নেওয়ার বিষয়ে ২০১৫ সালের শুরুর দিকে মালয়েশিয়া সরকারের সঙ্গে বাংলাদেশের চুক্তি স্বাক্ষরিত হলেও দীর্ঘদিন এই প্রক্রিয়া স্থগিত ছিল। ওই দেশের অভ্যন্তরীণ ঝামেলা শেষে আবারও লোক নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে, চাহিদাপত্রও এসেছে। যেকোনো সময়ই কর্মী যাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হবে।’ 

গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে ‘অভিবাসীদের অকথিত গল্প : স্বপ্ন ও বাস্তবতা’ শীর্ষক বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অভিবাসনবিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান রিফিউজি অ্যান্ড মাইগ্রেটরি মুভমেন্ট রিসার্চ ইউনিট (রামরু) ১৫০ জন অভিবাসীর জীবনের গল্প নিয়ে গ্রন্থটি প্রকাশ করেছে।

শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘ডিজিটাল পদ্ধতিতে মালয়েশিয়া থেকে চাহিদাপত্র এসেছে। প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে রিক্রুটিং এজেন্সির মাধ্যমে লোক পাঠানো হবে। প্রত্যেক শ্রমিকের সঙ্গে চুক্তি হবে। সেই চুক্তিপত্র অনলাইনে থাকবে।’ গ্রন্থের সম্পাদক তাসনিম সিদ্দিকী বলেন, ‘দুই দশক ধরে অভিবাসীদের নিয়ে কাজ করছি। যাদের টাকায় দেশ চলে তাদের মূল্যায়ন হয় না। অভিবাসীরা কম টাকাতে কাজ করে, কিন্তু এটাকেই অনেক বেশি মনে করে।’

রামরুর চেয়ারম্যান ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক সুমাইয়া খায়েরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারক বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ফখরুল আলম প্রমুখ। 

মন্তব্য