kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

ঝালকাঠিতে বাণিজ্যমন্ত্রী

নিশ্চিন্তে ব্যবসা বাণিজ্য চালিয়ে যান

ঝালকাঠি প্রতিনিধি   

১৭ জানুয়ারি, ২০১৬ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ‘আন্দোলনে বিফল হয়ে বিএনপি এখন নির্বাচনমুখী হয়েছে। খালেদা জিয়া ৫ জানুয়ারি ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচনে এলেন না, অথচ উপজেলা ও পৌরসভা নির্বাচনে অংশ নিলেন। ভবিষ্যতে ২০১৯ সালেও তাঁরা নির্বাচনে আসবেন। তাই ব্যবসায়ীদের বলা হয়েছে, নিশ্চিন্তে ব্যবসা-বাণিজ্য চালিয়ে যান। কারণ বিএনপির কোনো আন্দোলনই সফল হবে না।’

গতকাল শনিবার দুপুরে ঝালকাঠির পুরনো স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি সমৃদ্ধশালী দেশ গঠন হচ্ছে, ক্ষতি নয়। যদি এই দেশের কেউ ক্ষতি করে থাকে তবে, সে হলো জিয়াউর রহমান।’

সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, ‘বাংলাদেশ কারো মুখাপেক্ষী নয়। বিদেশি অর্থায়ন ছাড়াই পদ্মা সেতুর কাজ চলছে। সরকার পায়রা বন্দর স্থাপন করেছে। এই বন্দরকে ঘিরে অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে উঠবে। দক্ষিণাঞ্চলে অসংখ্য শিল্প-কারখানা হবে।’

ঝালকাঠি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সরদার মো. শাহ আলমের সভাপতিত্বে সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ সম্ভু, বরিশাল সদর আসনের সংসদ সদস্য জেবুন্নেছা আফরোজ ও ঝালকাঠি-১ আসনের সংসদ সদস্য বজলুল হক হারুন। সম্মেলনে সরদার মো. শাহ আলমকে সভাপতি ও খান সাইফুল্লাহ পনিরকে পুনরায় সাধারণ সম্পাদক করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করা হয়।

মন্তব্য