kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ব্যক্তিত্ব

২৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্যক্তিত্ব

মান্না দে

কণ্ঠশিল্পী মান্না দের জন্ম পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় ১৯১৯ সালের ১ মে। তাঁর প্রকৃত নাম প্রবোধ চন্দ্র দে। তাঁর বাবার নাম পূর্ণ চন্দ্র দে এবং মা মহামায়া দে। ছোটবেলায় পিতৃসম্বন্ধীয় সর্বকনিষ্ঠ কাকা কৃষ্ণ চন্দ্র দে তাঁকে অনুপ্রাণিত ও উৎসাহিত করেন। তিনি শৈশব পাঠ গ্রহণ করেছেন ইন্দু বাবুর পাঠশালা নামক ছোট প্রাক-প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। পরে স্কটিশ চার্চ কলেজিয়েট স্কুল এবং স্কটিশ চার্চ কলেজে স্নাতক শিক্ষাগ্রহণ করেন। স্কটিশ চার্চ কলেজে অধ্যয়নকালীন তিনি তাঁর সহপাঠীদের গান শুনিয়ে আসর মাতিয়ে রাখতেন। আন্ত কলেজ গানের প্রতিযোগিতায় তিনি ধারাবাহিকভাবে তিন বছর তিনটি আলাদা শ্রেণি বিভাগে প্রথম হয়েছিলেন। ১৯৪২ সালে কাকার সঙ্গে তিনি মুম্বাই ঘুরতে যান। সেখানে শুরুতে কৃষ্ণ চন্দ্র দের অধীনে সহকারী হিসেবে এবং পরে শচীন দেব বর্মণের অধীনে কাজ করেন। স্বনামধন্য গীতিকারের সান্নিধ্য লাভের পর তিনি স্বাধীনভাবে নিজেই কাজ করতে শুরু করেন এবং হিন্দি চলচ্চিত্রের সংগীত পরিচালনার পাশাপাশি হিন্দুস্তানি শাস্ত্রীয় সংগীতে তালিম নেন। ১৯৪৩ সালে ‘তামান্না’ চলচ্চিত্রে গায়ক হিসেবে তাঁর অভিষেক ঘটে। ধীরে ধীরে তিনি জনপ্রিয় গায়ক হিসেবে স্বীকৃতি পান। মোহাম্মদ রফি, কিশোর কুমার, মুকেশের মতো তিনিও ১৯৫০ থেকে ১৯৭০-এর দশক পর্যন্ত ভারতীয় চলচ্চিত্র জগতে সমান জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। তিনি সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি গান রেকর্ড করেন। পদ্মশ্রী, পদ্মবিভূষণ, দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার, বঙ্গবিভূষণ সম্মাননাসহ নানা পুরস্কারে তিনি অভিষিক্ত হয়েছেন। তাঁর আত্মজীবনী ‘জীবনের জলসাঘরে’ প্রকাশিত হয় ২০০৫ সালে। ২০১৩ সালের ২৪ অক্টোবর তিনি মারা যান।

[উইকিপিডিয়া অবলম্বনে]

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা