kalerkantho

ব্যক্তিত্ব

২ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্যক্তিত্ব

আবু সাঈদ চৌধুরী

বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরীর জন্ম টাঙ্গাইলে ৩১ জানুয়ারি ১৯২১ সালে। তাঁর বাবার নাম আবদুল হামিদ চৌধুরী। তিনি কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে ১৯৪০ সালে স্নাতক এবং কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ও আইন বিষয়ে ডিগ্রি লাভের পর ইংল্যান্ডের লিংকন্স ইন থেকে ব্যারিস্টারি পাস করেন। ১৯৪৭ সালে তিনি কলকাতা হাইকোর্টে আইন ব্যবসা শুরু করেন। দেশভাগের পর ১৯৪৮ সালে তিনি ঢাকা হাইকোর্টে আইন ব্যবসায়ে যোগ দেন। ১৯৬০ সালে তিনি পূর্ব পাকিস্তানের অ্যাডভোকেট জেনারেল এবং ১৯৬১ সালে হাইকোর্টের বিচারপতি নিযুক্ত হন। তিনি পাকিস্তানের সাংবিধানিক কমিশনের সদস্য এবং বাংলা উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান ছিলেন। ১৯৬৯ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিযুক্ত হন। ১৯৭১ সালে জেনেভায় অবস্থানকালে তিনি উপাচার্য পদে ইস্তফা দেন। মুজিবনগরে অস্থায়ী বাংলাদেশ সরকারের বিশেষ দূত হিসেবে জেনেভা থেকে তিনি লন্ডন যান এবং মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে আন্তর্জাতিক সমর্থন আদায়ে সচেষ্ট হন। ১৯৭২ সালে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন। ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুর মন্ত্রিসভায় তিনি বন্দর ও নৌপরিবহন মন্ত্রী ছিলেন এবং পরে খন্দকার মোশতাক আহমদের মন্ত্রিসভায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিযুক্ত হন। ১৯৭৮ সালে তিনি জাতিসংঘে নিরাপত্তাবিষয়ক উপকমিটির সদস্য এবং ১৯৮৫ সালে মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি নির্বাচিত হন। বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় তাঁকে ‘দেশিকোত্তম’ উপাধিতে ভূষিত করে এবং কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় তাঁকে সম্মানসূচক ডক্টর অব ল ডিগ্রি প্রদান করে। তাঁর রচিত ‘প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের দিনগুলি’ বিশিষ্ট গ্রন্থ। ২ আগস্ট ১৯৮৭ সালে তিনি লন্ডনে মৃত্যুবরণ করেন।

[বাংলাপিডিয়া অবলম্বনে]

মন্তব্য