kalerkantho

শনিবার । ১৬ নভেম্বর ২০১৯। ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ব্যক্তিত্ব

১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্যক্তিত্ব

সুচিত্রা সেন

চলচ্চিত্র অভিনেত্রী সুচিত্রা সেনের জন্ম বাংলাদেশের পাবনায় ৬ এপ্রিল ১৯৩১ সালে। তাঁর প্রকৃত নাম রমা দাশগুপ্ত। তাঁর বাবার নাম করুণাময় দাশগুপ্ত ও মা ইন্দিরা দেবী। পাবনা শহরেই তিনি পড়াশোনা করেছেন। বাংলা চলচ্চিত্রে উত্তম কুমারের বিপরীতে অভিনয় করে তিনি জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। ১৯৪৭ সালে দিবানাথ সেনের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়। ১৯৫২ সালে ‘শেষ কোথায়’ ছবির মাধ্যমে তাঁর চলচ্চিত্রযাত্রা শুরু হয়, কিন্তু ছবিটি মুক্তি পায়নি। উত্তমের বিপরীতে ‘সাড়ে চুয়াত্তর’ ছবিতে অভিনয় করার পর ছবিটি বক্স অফিসে সাফল্য লাভ করে এবং উত্তম-সুচিত্রা জুটি তুমুল জনপ্রিয়তা পায়। বাংলা ছবির এই অবিসংবাদিত জুটি পরবর্তী ২০ বছর ছিল আইকনস্বরূপ। ১৯৫৫ সালে দেবদাস ছবির জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার জেতেন, যা ছিল তাঁর প্রথম হিন্দি ছবি। ১৯৬৩ সালে ‘সাত পাকে বাঁধা’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য মস্কো চলচ্চিত্র উৎসবে তিনি সিলভার প্রাইজ ফর বেস্ট অ্যাকট্রেস জয় করেন। তিনিই প্রথম ভারতীয় অভিনেত্রী যিনি কোনো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে পুরস্কৃত হন। ১৯৭২ সালে ভারত সরকার তাঁকে পদ্মশ্রী সম্মান প্রদান করে। ১৯৭৮ সালে তিনি চলচ্চিত্র থেকে আড়ালে চলে যান এবং আত্মগোপনে থেকে রামকৃষ্ণ মিশনের সেবায় ব্রতী হন। ২০০৫ সালে দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কারের জন্য তিনি মনোনীত হন, কিন্তু ভারতের প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে সশরীরে পুরস্কার নিতে দিল্লি যাওয়ায় আপত্তি জানানোয় তাঁকে পুরস্কার দেওয়া হয়নি। ২০১৪ সালের ১৭ জানুয়ারি কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে তিনি মারা যান।

[উইকিপিডিয়া অবলম্বনে]

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা