kalerkantho

ব্যক্তিত্ব

মার্সেল প্রুস্ত   

৯ জুলাই, ২০১৪ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্যক্তিত্ব

মার্সেল প্রুস্ত একজন ফরাসি ঔপন্যাসিক, প্রাবন্ধিক ও সমালোচক। তাঁর জন্ম ১৮৭১ সালের ১০ জুলাই। তিনি বিখ্যাত তাঁর 'হারানো দিনের সন্ধানে' নামের বিপুল আকারের উপন্যাসের জন্য। ১৪ বছর ধরে সাত খণ্ডে লেখা হয়েছে বইটি। মার্সেল প্রুস্তের বাবা ছিলেন একজন নামিদামি ডাক্তার (প্যাথলজিস্ট)। তিনিও অনেক বই লিখেছেন চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য বিষয়ে। প্রুস্ত ৯ বছর বয়সে হাঁপানি রোগে আক্রান্ত হন। এরপর তাঁর স্বাস্থ্য আর স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরেনি। আজীবন ছিলেন রোগা। তিনি প্রাতিষ্ঠানিক পড়াশোনায় বেশি দূর এগোতে পারেননি দুর্বল স্বাস্থ্যের কারণে। কিন্তু সাহিত্যে অল্প বয়সেই সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হন। পত্রপত্রিকায় সামাজিক সমস্যা ও নানা রকম অসংগতি নিয়ে কলাম লিখতেন। প্রকাশ করেন সাহিত্য ম্যাগাজিনও। ১৮৯৫ সাল থেকে কয়েক বছর তিনি কাটান কার্লাই, এমারসন ও জন রাসকিন প্রমুখ লেখকের লেখা পড়ে।

১৯০৯ সালে রচনা শুরু করেন তাঁর সেরা গ্রন্থ 'হারানো দিনের সন্ধানে'। সাত খণ্ডে লিখিত বইয়ের পৃষ্ঠাসংখ্যা প্রায় তিন হাজার ২০০, অনুবাদে যার সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ায় চার হাজার ৩০০ পৃষ্ঠায়। দুই হাজারের বেশি চরিত্র সৃষ্টি করেন। গ্রাহাম গ্রিন প্রুস্তকে বিশ শতকের সেরা ঔপন্যাসিক বলেছেন। সমারসেট প্রস্তের 'হারানো দিনের সন্ধানে' উপন্যাসটিকে বলেছেন সময়ের সেরা। মার্সেল প্রুস্তের জীবন সম্পূর্ণরূপে বদলে যায় ১৯০০ থেকে ১৯০৫ সালের মধ্যে। তাঁর ভাই বিয়ে করে আলাদা চলে যান। বাবা মারা যান কিছুদিন পর। সবচেয়ে বড় পরিবর্তন আসে তাঁর স্নেহময়ী মা ১৯০৫ সালে মারা যাওয়ার পর। প্রুস্ত মৃত্যুবরণ করেন ১৮ নভেম্বর ১৯২২ সালে।

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা