kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৪ রবিউস সানি     

সময়মতো সিদ্ধান্ত নিতে হয়

১৬ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এবারের বাজার পরিস্থিতি আগে থেকেই অনুমান করা যাচ্ছিল। সেদিক থেকে সরকার সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে অনেক দেরি করে ফেলেছে। সরকার আগেই নীতিগত সিদ্ধান্ত নিলে আর বাস্তবায়ন সঠিকভাবে হলে বাজার এভাবে লাগামহীন হয়তো হতো না। সরকার পরে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এখন বাজারের লাগাম টানতে টিসিবির মাধ্যমে পেঁয়াজ বিক্রি করা হচ্ছে। কিন্তু এ উদ্যোগ প্রয়োজনের তুলনায় অল্প। কৃষিপণ্যের ক্ষেত্রে পরিস্থিতির সঙ্গে সঙ্গেই দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে হয়। ভারতের তরফ থেকে যখন নিষেধাজ্ঞা এলো, তখনই আমরা বিকল্প বাজারে নজর দিয়েছি। এখন মিয়ানমার থেকেও পেঁয়াজ আমদানি করা হয়। তুরস্ক ও মিসর থেকেও বেসরকারি পর্যায়ে আমদানির চেষ্টা চলছে। আমদানিকারকরা যাতে চীন, মেক্সিকো, নেদারল্যান্ডস যেখানেই কম মূল্যে পেঁয়াজ পাওয়া যাবে, সেখান থেকে আনতে পারেন সেই সুযোগ দিতে হবে। সরকারি পর্যায়েও সমন্বয় প্রয়োজন। কৃষি মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, সবাই মিলে সিদ্ধান্ত নিলে সুফল পাওয়া সম্ভব। টিসিবি কিভাবে ব্যাপক ভূমিকা রাখতে পারে, যাতে সব পর্যায়ের ক্রেতা উপকৃত হয়—সেটাও ভাবার বিষয়। সরকারি উদ্যোগে বাজার মনিটরিং যথার্থ উদ্যোগ। কেউ অতি মুনাফার জন্য গুদামজাত করে কৃত্রিম সংকট তৈরি করছে কি না সেটি অবশ্যই তদারকি করতে হবে। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে সরবরাহ ঠিক আছে কি না তা আগে নিশ্চিত করা চাই।

মেনহাজুল ইসলাম তারেক

মুন্সিপাড়া, পার্বতীপুর, দিনাজপুর।

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা