kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

আজকের শিশু আগামী দিনের বাবা

১৯ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পরিবারেই যদি শিশুরা নিরাপদ না থাকে, তাহলে কোথায় নিরাপদ থাকবে? পৃথিবীতে সবচেয়ে নিরাপদ জায়গা মায়ের কোল, বাবার ছায়া। পরিবারের বাইরে আর কোথায় বা নিরাপদ আশ্রয় পাওয়া যায়? কিন্তু পরিবারেই আজ শিশুরা হয়ে উঠছে অনিরাপদ? কেনই বা মা-বাবা তাঁর প্রিয় সন্তানকে হত্যা করতে দ্বিধা করছেন না? দেশ অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত হচ্ছে। চাহিদাও বাড়ছে। চাহিদা পূরণে মানুষজন ছুটছে টাকার পেছনে। টাকা ছাড়া তো জীবন চলবে না। কিন্তু টাকার পেছনে ছুটতে গিয়ে যদি চারপাশটা সামাল না দেওয়া যায়, যদি নিজের জীবন বিপন্ন হয়ে ওঠে, তাহলে কী লাভ হবে টাকা-পয়সা দিয়ে? ছোটার কারণে সামাজিকতা কমছে, কমছে দায়িত্ববোধ ও মানুষে মানুষে যোগাযোগ। সামাজিক বন্ধন বলে যে শব্দটা রয়েছে, তা বিলুপ্ত হয়ে গেছে প্রায়। মানুষের মধ্যে সৌজন্যবোধও কমছে। ব্যস্ততার মাঝে সব ফুরিয়ে যাচ্ছে। নিজের বাইরে বেশির ভাগ মানুষই কিছু ভাবতে পারছে না। রাস্তায় কেউ অজ্ঞান হয়ে পড়ে থাকলে কেউ এগিয়ে যায় না। মানুষ যত আত্মকেন্দ্রিক হচ্ছে, তত ছোট হচ্ছে তাদের জগৎ, চিন্তার পরিধি। ফলে বাড়ছে হতাশা। বাড়ছে মানসিক অস্থিরতা। এর প্রভাব পরোক্ষভাবে পড়ছে শিশুদের ওপরও।

মেনহাজুল ইসলাম তারেক

মুন্সিপাড়া, পার্বতীপুর, দিনাজপুর।         

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা