kalerkantho

বুধবার । ৮ বৈশাখ ১৪২৮। ২১ এপ্রিল ২০২১। ৮ রমজান ১৪৪২

প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকদের দশম গ্রেড যৌক্তিক দাবি

৪ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকদের দশম গ্রেড যৌক্তিক দাবি

প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকরা ১৪তম গ্রেডে যে বেতন পাচ্ছেন, যা দিয়ে শিক্ষকদের নুন আনতে পান্তা ফুরায় অবস্থা। ২০২০ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৩তম গ্রেডে ঘোষণা করা হয়েছে; কিন্তু শিক্ষকরা এখনো তা পাননি। আগে সহকারী শিক্ষকদের শিক্ষাগত যোগ্যতা ছিল পুরুষদের স্নাতক এবং নারীদের এসএসসি। কিন্তু নতুন নীতিমালায় সহকারী শিক্ষকদের নারী-পুরুষ উভয়ের যোগ্যতা দ্বিতীয় শ্রেণির স্নাতক করা হয়েছে। স্নাতক পাসে যোগ্যতা অনুযায়ী দ্বিতীয় শ্রেণির দশম গ্রেড পাওয়ার যোগ্য। অথচ যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও সহকারী শিক্ষকরা তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী। নিম্ন বেতন-ভাতার কারণে মেধাবী ও উচ্চশিক্ষিত লোকজন শিক্ষকতা পেশায় আসতে চান না। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে শিক্ষকদের সর্বোচ্চ মর্যাদা দেওয়া হলেও আমাদের শিক্ষকরা তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী। আর শিক্ষকতার মতো পেশার লোকদের তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী করে রাখার ফল সমাজ ও দেশের জন্য ভালো হতে পারে না। মানসম্মত শিক্ষা পেতে হলে শিক্ষকদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধি করতে হবে। এ জন্য প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকদের দশম গ্রেড এবং প্রধান শিক্ষকদের নবম গ্রেডে বেতন প্রদানের ব্যবস্থা নিতে হবে।

মুন্নাফ হোসেন

ধনবাড়ী, টাঙ্গাইল।

মন্তব্য