kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ জানুয়ারি ২০২০। ১০ মাঘ ১৪২৬। ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

মুক্তিযুদ্ধ ভাস্কর্যের নামকরণ

১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



মুক্তিযুদ্ধ ভাস্কর্যের নামকরণ

‘অপরাজেয় বাংলা’, ‘সংশপ্তক’, ‘শাবাশ বাংলাদেশ’, ‘দুর্বার বাংলা’, ‘বিজয় ৭১’, ‘চেতনা ৭১’ ইত্যাদি ভাস্কর্যের সঙ্গে মিশে আছে বাংলাদেশের ইতিহাস-ঐতিহ্য, ভাষা আন্দোলন, স্বাধীনতাসংগ্রাম আর বীর বাঙালির মুক্তির চেতনা। উদ্দীপনামূলক নামের এই ভাস্কর্যগুলো যেন স্বাধীন বাংলার এক টুকরা প্রতিচ্ছবি।  বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে স্থান পাওয়া ভাস্কর্য যেন শিক্ষার্থীদের মাঝে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার আলো ছড়িয়ে দেয়। ঐতিহাসিক ঘটনার সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে থাকা ভাস্কর্যগুলো তরুণ-তরুণীদের মাঝে মুক্তিযুদ্ধ ও দেশকে জানার এবং চেনার ইচ্ছা তৈরি করে। নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়েও রয়েছে এমনই একটি ভাস্কর্য। উদ্বোধনের প্রায় অর্ধযুগ পেরিয়ে গেলেও এটি এখনো কোনো নাম পায়নি। ভাস্কর্যের নাম ঠিক করা নিয়ে উদ্যোগ দেখা যায় না বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের। প্রশাসনিক ভবনের সামনে স্থাপিত ভাস্কর্যটি ২০১৩ সালে তৎকালীন উপাচার্য উদ্বোধন করেন। সাময়িকভাবে এর নাম দেওয়া হয় ‘স্বাধীনতা ভাস্কর্য’। পরে কোনো নাম পায়নি। ভাস্কর্যটির দ্রুত নামকরণের মাধ্যমে এর ঐতিহ্যকে সম্মান দেখানোর জন্য কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি আশা করছি।

ওহী আলম

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী। 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা