kalerkantho

রবিবার । ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯। ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৭ রবিউস সানি                    

শিশুশ্রম বন্ধ হোক

১৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



যে বয়সে শিশুদের হেসেখেলে লাটাইয়ে সুতা পেঁচিয়ে লাল-নীল রঙের ঘুড়ি ওড়ানো এবং হাতে বই-খাতা নিয়ে স্কুলে যাওয়ার কথা, সেই সময় তারা বিভিন্ন দোকান ও বস্তিতে কাজ করছে। অনেক শিশু লেদের দোকানে হাতুড়ি পেটায়, ফুটপাতের চায়ের দোকানে পানি পরিবেশন করছে। বাসস্ট্যান্ড বা রেলস্টেশনে পত্রিকা বিক্রি করছে। ঝালমুড়ি, বাদাম বিক্রিতেও শিশুরা নিয়োজিত হচ্ছে। একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের যে কাজ সেই কাজ করানো হচ্ছে শিশুদের দিয়ে। শিশুশ্রমের পেছনে সবচেয়ে বড় কারণ অভাব। কোনো মা-বাবাই হয়তো চান না তাঁর সন্তান পড়ালেখা না করে কাজে নেমে পড়ুক। অভাবের তাড়না ও অভিভাবকের অশিক্ষার কারণে কোমলমতি শিশুদের হাতে তাঁরা বইয়ের বদলে তুলে দিচ্ছেন হাতুড়ি। কলমের বদলে চায়ের কাপ, খাতার বদলে ভিক্ষার ভাঙা থালা। মানবাধিকারকর্মীদের বাড়িতেও কাজের মেয়ে হিসেবে শিশুদের দেখা যায়। তাঁরা সারা দিন শিশুদের অধিকারের কথা বলেন, বাড়িতে ফিরে কাজের শিশুর ওপর হাত তোলেন। শিশুশ্রম বন্ধে সামাজিকভাবে ও সরকারি উদ্যোগে শিশুদের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়নে কাজ করতে হবে। শিশুদের কোনোভাবেই অবহেলা করা যাবে না।

রেজাউল রেজা

সরকারি সিটি কলেজ, রাজশাহী।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা