kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

কুষ্টিয়ায় সাঁতার একাডেমি চাই

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুষ্টিয়ায় সাঁতার একাডেমি চাই

বাংলাদেশের ক্রীড়া ক্ষেত্রে যে কটি ইভেন্টে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সাফল্য এসেছে, তার মধ্যে সাঁতার অন্যতম। নদীমাতৃক বাংলাদেশের জন্য সাঁতার একটি সম্ভাবনাপূর্ণ খেলা। অতীতে সাফ গেমসে পদক প্রাপ্তির প্রধান ইভেন্টেই ছিল সাঁতার। সাঁতারু মোশাররফ নিজেই এক সাফ গেমসে পাঁচটি ইভেন্টে সোনা জিতেছিলেন, যা যেকোনো বাংলাদেশির জন্য বিরল রেকর্ড। এরই ধারাবাহিকতায় কারার মিজানুর রহমান, ছামেদুল ইসলাম সাঁতারে বাংলাদেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করে বহু পদক এনে দিয়েছেন। তাঁদের পরে বাংলাদেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছেন সবুরা খাতুন, মেরিনা, জুয়েল রানা—যাঁদের প্রায় সবাই উঠে এসেছেন কুষ্টিয়া জেলার মিরপুর উপজেলার আমলা থেকে। বাংলাদেশের এখনো বেশির ভাগ সাঁতারু জোগান দিয়ে যাচ্ছে কুষ্টিয়া জেলার মিরপুর উপজেলার আমলা। সাঁতারুদের এই সাফল্যের কারণে কুষ্টিয়াবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ছিল কুষ্টিয়ায় একটি আধুনিক মানের সুইমিং পুল নির্মাণের। আর এই দাবির প্রতি সম্মান রেখে বর্তমান সরকার ২০১৬ সালে কুষ্টিয়ায় একটি আধুনিক সুইমিং পুল নির্মাণ করে, যেখানে চমৎকার আবাসন সুবিধা রয়েছে, যা একটি পূর্ণাঙ্গ সাঁতার একাডেমিসহ বিভিন্ন বয়সভিত্তিক সাঁতারুদের নিয়ে প্রশিক্ষণ পরিচালনা করা সম্ভব। কুষ্টিয়ার সাঁতারুরা এখনো সেই মিরপুর উপজেলার আমলার বিভিন্ন পুকুরেই সাঁতার প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে চলেছেন, আর অত্যাধুনিক সুইমিং পুলটি বাণিজ্যিকভিত্তিতে বেসরকারিভাবে পরিচালিত হচ্ছে। এখানে একটি সাঁতার একাডেমি স্থাপন করে দক্ষ সাঁতারু তৈরি করা সম্ভব। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আবেদন জানাচ্ছি।

মাহবুব আরেফিন

আমলা সদরপুর, মিরপুর, কুষ্টিয়া।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা