kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

নিরাপত্তাজনিত ঝুঁকিতে বাংলাদেশ

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিরাপত্তাজনিত ঝুঁকিতে বাংলাদেশ

রোহিঙ্গাদের মূল শর্তগুলো পূরণ না হলে প্রত্যাবাসন শুরু করা সম্ভব হবে না। নিজ দেশে নাগরিকত্ব প্রদান, নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ ও অবাধ চলাচলের পথকে সুগম করা না হলে তারা ফিরে যাবে না। মোট পাঁচটি দাবির মধ্যে অন্তত এ তিনটি দাবি যদি নিশ্চিত করা যায়, তাহলে হয়তো বাকি দাবিগুলো এমনিতেই পূরণ হয়ে যেত, রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান সম্ভব হতো। মিয়ানমার সরকারের প্রতিশ্রুতিতে রোহিঙ্গাদের আস্থা আছে কি না বা তারা বাস্তুভিটায় ফিরে যেতে রাজি কি না তা বিবেচনা করে প্রত্যাবাসনের দিনক্ষণ ঠিক করা উচিত ছিল। প্রত্যাবাসন চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর বাংলাদেশকে দোষারোপ করার আরো একটি সুযোগ মিয়ানমার পেল। রোহিঙ্গাদের ফিরে যেতে নিরুৎসাহিত করার জন্য আশ্রয়শিবিরে ব্যাপক লিফলেট বিতরণের খবর বেরিয়েছে সংবাদমাধ্যমগুলোতে। শিবিরগুলোতে কর্মরত বেশ কিছু এনজিও এ তৎপরতায় জড়িত। জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক মহলের সাহায্য ছাড়া আশ্রয়শিবির চালানো বাংলাদেশের একার পক্ষে সম্ভব নয়। বাংলাদেশ নিরাপত্তাজনিত মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে আছে। বাংলাদেশ, মিয়ানমার এবং রোহিঙ্গা জনগণের স্বার্থ রক্ষা করে একটি গ্রহণযোগ্য সমাধানে চীনকে রাজি করাতে হবে। এ জন্য চাই জোরদার কূটনৈতিক তৎপরতা।

মো. ফজলুল করিম

বারইয়ারহাট পৌরসভা, চট্টগ্রাম।  

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা