kalerkantho

মঙ্গলবার । ২২ অক্টোবর ২০১৯। ৬ কাতির্ক ১৪২৬। ২২ সফর ১৪৪১              

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে হাজিরা

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে হাজিরা

দুর্নীতি দমন কমিশন এরই মধ্যে প্রাইমারি স্কুলেও হানা দিয়েছে শুনে দেশবাসী খুশি। আমাদের পরামর্শ ও দাবি হচ্ছে, সরকারি-বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে দৈনিক পত্রিকায় সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করা খুব জরুরি। শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবার মান নির্ণয়ের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ জরুরি। হোটেলের মতো কোন হাসপাতাল ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কোন ক্যাটাগরির, তা যেন প্রতিষ্ঠানের দেয়ালে লিখে রাখা হয়। দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের ১০০ শতাংশ সরকারি বেতন-ভাতা দেওয়া হয় যেন। শিক্ষার মান বাড়াতে হলে এ ক্ষেত্রে কোনো ছাড় দেওয়া চলবে না। উন্নত ও নামিদামি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষাপদ্ধতির কারিকুলাম মানহীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে অনুসরণ করতে বলতে হবে। বহু শিক্ষক মিথ্যা অজুহাতে প্রায়ই বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকেন এবং অনেক সময় বিদ্যালয়ে এসে কিছুক্ষণ পরেই অজুহাত দেখিয়ে বেরিয়ে যান। সেদিন আর ফেরেন না। এসব বিষয় লিখিতভাবে প্রতিষ্ঠানে সংরক্ষণ করতে হবে এবং বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে হাজিরার ব্যবস্থা করতে হবে। এতে ডাক্তার ও শিক্ষকদের অফিস কামাই বন্ধ হবে। জরুরিভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন পেশ করছি।

মীর মো. কুতুব উদ্দিন

নুরুল্লাপুর, লক্ষ্মীপুর।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা