kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

হিজড়াদের চাঁদাবাজি

১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



দে, টাকা দে। এই হাসবি না, টাকা দে। ট্রেনের ঝিকঝিক শব্দ আর ইঞ্জিনের হুইসেলের মতো রেলপথের যাত্রীদের কাছে এসব চিরচেনা বাক্য। হ্যাঁ, তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ হিজড়াদের কথা বলছি। রাস্তাঘাট, বাস, ট্রেনে হিজড়াদের টাকা তোলা নতুন কিছু নয়। কিন্তু এই টাকা তোলা বর্তমানে চাঁদাবাজিতে পরিণত করেছে তারা। গত শুক্রবার রাজশাহী থেকে কুষ্টিয়ার উদ্দেশে কপোতাক্ষ ট্রেনে ভ্রমণ করি। যাত্রাপথে ট্রেনের বগিতে হিজড়াদের চাঁদাবাজি শুরু হয়। কেউ চাঁদা দিতে অপারগতা জানালে নানা রকম অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি আর কুরুচিপূর্ণ কথা বলে। এতে ট্রেনের বগির গার্ড ও পুলিশ নির্বিকার তাকিয়ে ছিলেন। কিছু বলেননি। ট্রেনের বগির ভেতরে এরূপ জোরপূর্বক চাঁদা আদায়ের অনুমতি তারা কিভাবে পায়? যদি তা না হয়, যাত্রীদের যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে পদক্ষেপ গ্রহণে সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

মো. আখতার হোসেন আজাদ

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা