kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৯ নভেম্বর ২০২২ । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর

ডাস্টবিন থেকে সাড়ে তিন কোটি টাকার সোনা উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৭ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ডাস্টবিন থেকে সাড়ে তিন কোটি টাকার সোনা উদ্ধার

রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ডাস্টবিন থেকে সাড়ে তিন কোটি টাকার সোনার বার উদ্ধার করেছেন ঢাকা কাস্টম হাউসের প্রিভেনটিভ টিমের সদস্যরা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিমানবন্দরের বে নম্বর-১২-এর পাশের ডাস্টবিন থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় এগুলো উদ্ধার করা হয়। তবে এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কোনো বাহককে আটক করা যায়নি।

ঢাকা কাস্টম হাউসের প্রিভেনটিভ টিমের কর্মকর্তা নাফিস আমিন রিজভি জানান, ডাস্টবিনে একটি স্কচ টেপে মোড়ানো দণ্ড পাওয়া যায়।

বিজ্ঞাপন

পরে সেটি খুলে ৩০টি সোনার বার উদ্ধার করা হয়। এগুলোর আনুমানিক ওজন তিন কেজি ৪৮০ গ্রাম এবং বাজারমূল্য প্রায় তিন কোটি ৫০ লাখ টাকা। এ বিষয়ে ফৌজদারি মামলাসহ কাস্টম আইনে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

এর আগে এ বছরের ২৭ এপ্রিল বিমানবন্দরের টয়লেটের ময়লার ঝুড়ি থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় কালো স্কচ টেপে মোড়ানো ৪৬টি সোনার বার উদ্ধার করে গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। যার আনুমানিক বাজার মূল্য সাড়ে চার কোটি টাকা।

ঢাকা কাস্টম হাউসের তথ্য মতে, চলতি বছরের প্রথম পাঁচ মাসে (জানুয়ারি-মে) শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে অবৈধভাবে আনা ২৭০ কেজি ১৪৬ গ্রাম (ছয় মণ ৩০ কেজি) সোনা উদ্ধার করা হয়েছে। এর আনুমানিক বাজারমূল্য ১২৮ কোটি ২০ লাখ টাকা। এই চোরাচালানের বেশির ভাগই এসেছে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ থেকে। এর মধ্যে গত পাঁচ মাসে ২৫ মামলায় আটক করা হয়েছে ২৫ জনকে।

কাস্টম আরো জানায়, ২০২১ সালে ১৭ মণ ১৫ কেজি, ২০২০ সালে আট মণ ৩২ কেজি (করোনায় প্রায়  তিন মাস ফ্লাইট বন্ধ ছিল), ২০১৯ সালে ১৬ মণ ২৩ কেজি ২৭৮ গ্রাম, ২০১৮ সালে ১৮ মণ ৩৬ কেজি ১৪৯ গ্রাম সোনা জব্দ করা হয়।

দেখা গেছে, গার্মেন্ট অ্যাকসেসরিজের কার্টন, ময়লার ঝুড়ি, বিমানের সিট, টয়লেট, লাগেজসহ যাত্রীর শরীরে বহন করা হচ্ছে সোনার এসব অবৈধ চালান। সোনা পাচার চক্রের বাহকরা মাঝেমধ্যে ধরা পড়লেও ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছেন হোতারা।

 



সাতদিনের সেরা